আর কি কি করবেন, মহেন্দ্র সিং ধোনি? মঙ্গলবার, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তাঁর ৭৮ বলে ১১৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলার পর থেকে তাঁকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশংসার বন্যা বইছে। শুধু ব্যাট হাতেই নয়, বাংলাদেশের ব্য়াটিং-এর সময় দলের বোলারদের পরামর্শ দেওয়া থেকে শুরু করে ফিল্ডিং সাজানো দলের রিমোট কন্ট্রোল বিরাট কোহলি তুলেই দিয়েছিলেন ধোনির হাতে। কিন্তু এখানেই থামেননি ধোনি, ব্য়াট করার সময়, বাংলাদেশের ফিল্ডিং-ও সাজালেন তিনি।

সেই সময়, ভারতীয় ইনিংস টেনে নিয়ে যাচ্ছিলেন ধোনি ও কেএল রাহুল। স্ট্রাইকে ছিলেন ধোনি। বল করছিলেন বাংলাদেশী স্পিনার সাব্বির রহমান। কিন্তু সাব্বির বল করতে আসলে ধোনি ক্রিজ ছেড়ে সরে যান। অবাক সাব্বির তাঁকে জিজ্ঞেস করেন কী সমস্যা হয়েছে? ধোনি তাঁকে দেখান এক বাংলাদেশী ফিল্ডার লেগ সাইডে এক অদ্ভুত জায়গায় দাঁড়িয়ে আছেন।

বাংলাদেশী ওই ফিল্ডার লেগ সাইডে যে জায়গায় দাঁড়িয়েছিলেন সেখানটিকে না পয়েন্ট এলাকা বলা যায়, না ফরোয়ার্ড শর্ট লেগ। এই জায়গায় দাঁড়িয়ে ব্যাটসম্যানের মারা কোনও বলের নাগাল পাওয়া সম্ভব নয়। মহেন্দ্র সিং ধোনি ওই ভুল ধরিয়ে দেওয়ার পরই সাব্বির হেসে ফেলেন। তিনি ওই ফিল্ডারকে পয়েন্ট এলাকায় সরে যেতে বলেন। হেসে ফেলেন আম্পায়ারও।

বিশ্বকাপের দেশে রওনা দেওয়ার আগে ভারতের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী বলেছি ধোনির বিশাল ভূমিকা হতে যাচ্ছে। দ্বিতীয় অনুশীলন ম্যাচেই তা বুঝিয়ে দিয়েছেন ধোনি। মঙ্গলবার ২১ ওভারের মাথায় ১০২ রানে ভারতের চার উকেট পড়ে গিয়েছিল। প্যাভিলিয়নে ফিরে গিয়েছিলেন ভরসার তিন নাম ধাওয়ান, রোহিত, কোহলি। সেখান থেকে রাহুলকে সঙ্গে নিয়ে ভারতের সাড়ে তিনশ'র উপরে নিয়ে লে যান ধোনি।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে তো কোহলি নয়, বরং ভারত অধিনায়ক মনে হয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনিকেই। ফিল্ডিং সাজানো, কোন ব্য়াটসম্যানকে কোন লাইন-লেন্থে বল করতে হবে বোলারদের তার পরামর্শ দেওয়া, প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের জন্য ফাঁদ তৈরি আউটের জন্য কোন আবেদনে রিভিউ নেওয়া হবে তা ঠিক করা - সবই করেছেন ধোনি। এবার নিজের দলের পাশাপাশি অপর দলেরও অধিনায়কত্ব শুরু করে দিলেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক।