রবিবার ঐতিহাসিক লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডে মুখোমুখি হচ্ছে পয়েন্ট টেবিলে আট ও নয় নম্বরে থাকা পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকা। দুটি দলই ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত দল। তাই এই অবস্থানটা দুটি দলের পক্ষেই লজ্জার। কাজেই দুটি দলই এই ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলে উপরের দিকে উঠতে চাইবে।

কিন্তু আগের ম্যাচেই চির-প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিরুদ্ধে বড় পরাজয়ের পর পাকিস্তান দলের উপর দিয়ে রীতিমতো ঝড় বয়ে গিয়েছে। ভারত ম্যাচের আগে পাক ক্রিকেটারদের মজলিশ থেকে পাক বোর্ডের বিশ্বকাপের পর পারফরম্যান্স নিয়ে দলের সঙ্গে আলোচনার ঘোষণা - বিভিন্ন দিক থেকে আক্রমণের মুখে পড়েছে পাকিস্তান দল।

তারপরেও অবশ্য প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে নামার আগে পাকিস্তানি অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ দাবি করলেন ভারত ম্যাচ হারলেও পাকিস্তান দলের মনোবল ভাঙেনি। বরং জেতার বিশ্বাস এখনও অটুট রয়েছে দলের ছেলেদের মধ্যে।

ভারত ম্যাচে হারের পর অনেক আলোচনা হয়েছে সরফরাজ আহমেদের মাঠের মধ্যে হাই তোলা নিয়ে। ভারতের ইনিংসে বৃষ্টির পর ফের খেলা শুরু হওয়ার সময় সরফরাজের ওই হাই তোলার দৃশ্য ধরা পড়েছিল টিভি ক্যামেরায়। তারপর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায়, সংবাদ মাধ্যমে জোর চর্চা হয়েছে সেই হাই তোলা নিয়ে। রীতিমতো হাসাহাসি, ব্যঙ্গ বিদ্রুপও করা হয়।

প্রাক ম্যাচ সাংবাদিক সম্মেলনেও সরফরাজকে এই হাই তোলা নিয়ে প্রশ্নের সম্মুখিন হতে হয়। দুর্দান্ত জবাবে কিন্তু সমালোচকদের এদিন ধুয়ে দিয়েছেন পাক অধিনায়ক। তিনি বলেন 'হাই তোলা একটি স্বাভাবিক কাজ। আমি কোনও অপরাধ করিনি। যদি আমার হাই তোলা নিয়ে কিছু মানুষ টাকা কামাতে পারে, তাহলে সেটা ভালই।'

মুখে মোক্ষম জবাব দিলেন পাক অধিনায়ক। কিন্তু মাঠে তা করে দেখাতে পারবেন কি? এটাই এখন বড় প্রশ্ন। দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচেই মিলবে জবাব।