Asianet News Bangla

কপিল দেব,বিরাট কোহলির দলকে হারানোর ক্ষমতা রাখে ৮৫-র ভারতীয় দল,মন্তব্য রবি শাস্ত্রীর

  • বিরাট কোহলির দলের থেকে ভাল ১৯৮৫-র ভারতীয় দল
  • যেই দল অস্ট্রেলিয়া বেনসন অ্যান্ড হেজেস ট্রফি জিতেছিল
  • কপিল দেবের ১৯৮৩-র দলের থেকে শক্তিশালী ছিল ৮৫-র দল
  • ভারতীয় দলের কোচ রবি শাস্ত্রীর মন্তব্যে ঝড় সোশ্যাল মিডিয়ায়
     
1985 World Championship winning India team is better than Kapil Dev and Virat Kohlis team,says Ravi Shastri
Author
Kolkata, First Published May 6, 2020, 5:07 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

দেশ জুড়ে চলা লকডাউনের কারণে আলিবাগের ফার্ম হাউসে এখন দিন কাটাচ্ছেন বিরাট কোহলিদের হেডস্যার রবি শাস্ত্রী।  অন্যান্যদের মত সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাক্টিভিটি বেড়েছে  রবি শাস্ত্রীরও। অবসর সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন লাইভ শো-তে অংশ নিচ্ছেন ভারতীয় কোচ। এমনই একটি শোতে শিষ্যের দলের থেকে শিক্ষকের দলকেই এগিয়ে রাখলেন শাস্ত্রী। কী বুঝতে অসুবিধা হল? হওয়ার কথা। সম্প্রতি ফেসবুকে একটি লাইভ শো-তে অংশ নেন রবি শাস্ত্রী। সেখানে বলেন,কোহলিদের হারিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা ছিল ১৯৮৫-র বেনসন অ্যান্ড হেজেস ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ কাপজয়ী দলের। শুধু এটুকু বলেই তিনি থেমে যাননি, তাঁর মতে ভারতীয় ক্রিকেটে যদি অতীত থেকে বর্তমানকে ধরা হয়, তাহলে ’৮৫-র দলটাই হল সেরা। বর্তমানে মনে করেন ভারতীয় ক্রিকেট দল ক্রিকেটের ইতিহাসে অন্যতম শক্তিশালী দল। ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসের সেরা দল তো অবশ্যই। আর সেই দলেরই কোচ রবি শাস্ত্রী। সেই শাস্ত্রীই জানিয়ে দিলেন তার নজরে কোহলি বাহিনী সেরা নয়, সেরা ৮৫-র গাভাসকরের দল।

আরও পড়ুনঃ১৬ মে থেকে জার্মানিতে ফিরছে ফুটবল,তার আগে জেনে নিন বুন্দাসলিগার সেরা ১০ লেজেন্ড কারা

শুধু বিরাট কোহলির দল নয়, ১৯৮৩-র কপিল দেবের বিশ্বকাপ জয়ী দলের থেকেও ৮৫-র দল বেশি ভাল ছিল বলে দাবি করেছেন রবি শাস্ত্রী। ফেসবুকে একটি চ্যানেলের শোয়ে শাস্ত্রী বলেন, “সাদা বলের ক্রিকেটে ভারতের যে কোনও দলকেই চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলার ক্ষমতা রাখত ১৯৮৫ সালের সেই দল। বিরাট কোহালির দলকেও হাড্ডাহাড্ডি লড়তে বাধ্য করত সেই দল।” এমনকি, ১৯৮৩ সালে কপিল দেবের বিশ্বকাপজয়ী দলের চেয়েও সেই দল শক্তিশালী  ছিল বলে দাবি করেছেন শাস্ত্রী। তিনি বলেছেন, “এক ধাপ এগিয়ে এটা বলতে পারি যে, ১৯৮৩ সালের চেয়ে ১৯৮৫ সালের দল বেশি শক্তিশালী ছিল। আপনারা জানেন, দুটো দলেই আমি ছিলাম। বিশ্বকাপজয়ী দলের ৮০ শতাংশই ছিল সেই দলে। কিন্তু বেশ কয়েক জন তরুণ দলে এসেছিল। যেমন শিবরামকৃষ্ণণ, সদানন্দ বিশ্বনাথ, আজহারউদ্দিন। ১৯৮৩ সালের সেই দলের অভিজ্ঞতার সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল তারুণ্য।” 

আরও পড়ুনঃবোলরদের চিন্তা কমাতে লালা-ঘামের পরিবর্তে বল পালিশে নতুন পদ্ধতি আনছে কোকাবুরা

আরও পড়ুনঃভারতে খেলাধুলা শুরু করার নীল নকশা তৈরি করল অলিম্পিক সংস্থা,কী রয়েছে তাতে

১৯৮৫ সালে সুনীল গাওস্করের নেতৃত্বে ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছিল ভারত। সেই জয়ে বড় অবদান ছিল শাস্ত্রীর। ‘প্লেয়ার অফ দ্য টুর্নামেন্ট’ হয়েছিলেন তিনি। জিতেছিলেন অডি গাড়ি। আবার এখন জাতীয় দলের সঙ্গেও কোচ হিসেবে যুক্ত তিনি। বিশ্ব ক্রিকেটে ভারতীয় দলের ধারাবাহিক পারফরম্যান্সে বড় ভূমিকা রয়েছে তাঁর। কিন্তু বর্তমানে নিজের দলের সঙ্গে এহেন মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন শাস্ত্রী। স্বভাবতই তাঁর এই মন্তব্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে বলতে শুরু করেছেন, তাহলে কী কোহলিদের উপর তেমন আস্থা রাখেন না শাস্ত্রী? নাকি এই দলের উপর তাঁর তেমন ভরসা নেই। না হলে এই ধরনের মন্তব্য কেন করবেন? যদিও কোহলি বা কপিল দেব কেউই এখনও এই বিষয়ে তেমন কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি।
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios