গুয়াহাটি নয়, হোম ম্যাচ অসমের বাইরে খেলতে চাইছে অসম ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন।  ১৭ তারিখ থেকে গুয়াহাটিতে শুরু হওয়ার কথা ছিল অসম ও ঝাড়খন্ডেপর মধ্যে রঞ্জি ম্যাচ। কিন্তু সেই ম্যাচ হওয়া নিয়ং সংশয় রয়েছে। অসম ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন বোর্ডের কাছে আবেদন জানিয়েছে ঝাড়খন্ডে ম্যাচ আয়োজন করতে। নাগরিকত্ব বিল নিয়ে গোটা উত্তর পূর্বাঞ্চল অশান্ত হয়ে আছে। আগরতলাতেই আটকে আছে ঝড়খন্ড দল। আগরতলা থেকে তাদের গুয়াহাটি এসে ম্যাচ খেলার কথা ছিল। কিন্তু সেটা হবে না। কারণ বর্তামন অবস্থায় অসমে ম্যাচ আয়োজন সম্ভব নয়। বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও ইংল্যান্ডে থাকলেও গোটা পরিস্থির ওপর নজর রাখছেন, খোঁজ রাখছেন গোটা পরিস্থিতির। সৌরভের কড়া নির্দেশ ক্রিকেটার ও ম্যাচ অফিসিয়ালদের নিরাপত্তা নিয়ে যেন কোনও অপস না করা হয়। তাই তাদের হোম ম্যাচ অসম থেকে সরিয়ে নেওয়ার আবেদন করেছেন, অসম ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান দেবজিত সৈকিয়া। কিন্তু এখন প্রশ্ন ১৭ তারিখ থেকে ঝাড়খন্ডে কী ম্যাচ অয়োজন সম্ভব? দুটি দল কী নির্দিষ্ট সময়ে সেখানে পৌছাতে পারবে? 

আরও পড়ুন - নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে রণক্ষেত্র কোনা এক্সপ্রেসওয়ে, পুড়ল ছয়টি বাস

এদিকে গোটা অসম জুড়ে লাগাতার বিক্ষোভের জেরে বাতিল করে দেওয়া হয়েছে অনুর্ধ্ব ১৯ কোচবিহার ট্রফির খেলা। শুক্রবার নগাঁওতে খেলা শুরু হওয়ার কথা ছিল অসম ও ওড়িশার মধ্যে। কিন্তু বিক্ষোভের জেরে নগাঁও পৌঁছাতেই পারেনি ওড়িশা দল ও ম্যাচ অফিসিয়ালরা। বুধবার সন্ধে ছটার পর ম্যাচ অফিসিয়াল ও ওড়িষা দলের ক্রিকেটারার গুয়াহাটি বিমান বন্দরে পৌঁছায়। তারপর সেখান থেকে ১৩০ কিমি বাস সাফরে করে নগাঁও পৌছানোর কথা ছিল। কিন্তু বিক্ষোভের জেরে আধঘন্টা এগোনোর পরই নিরাপত্তার প্রশ্ন উঠে যায়। অসম ক্রিকেয় অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে সেই সময় যোগাযোগ করা হলে তারা। হাইওয়ের ধারেই একটি হোটের ব্যাবস্থা করেন। সেখানেই দিন দুয়েক আটকে ছিলেন ওড়িষা দলের ক্রিকেটার ও ম্যাচ অফিসিয়ালরা। শুক্রবার কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে তাদের গুয়াহাটি বিমান বন্দরে পৌঁছে দেওয়া হয়। গোটা পরিস্থিতিতে অসম পুলিশ, সেনা কর্তা ও অসম ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন যে ভাবে ওড়িশার তরুণ ক্রিকেটারদের আগলে রেখেছিল তার প্রশংসা করেন ম্যাচ অফিসিয়াল শ্রীকুমার নায়েক। 

আরও পড়ুন - ধীরে ধীরে শান্ত হচ্ছে উত্তর-পূর্ব, আন্দোলন রাজধানীর পথে

আইএসএলের খেলা বাতিল হয়েছিল বৃহস্পতিবার। তারপর শুক্রবার অসম-সার্ভিসেস রঞ্জি ম্যাচের চতুর্থ দিনের খেলা আর শুরু করায় যয়নি গুয়াহাটিতে কার্ফু থাকায়। এবার ত্রিপুরাতে বাতিল করে দেওয়া হল জাতীয় জুনিয়র ফুটবল। স্কুল গেমস ফেডারেশনের উদ্যোগে ১৮ ডিসেম্বর থেকে ত্রিপুরায় শুরু হওয়ার কথা ছিল অনুর্ধ্ব ১৭ জাতীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির দিকে তাকিয়ে সেই টুর্নামেন্টেও আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

আরও পড়ুন - আবার চোট পেয়ে ছিটকে গেলেন ভুবনেশ্বর কুমার, একদিনের দলে শার্দুল ঠাকুর