হাসপাতাল থেকে ছাড়া না পাওয়া পর্যন্ত সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কেমন রয়েছেন তা নিয়ে কৌতুহল রয়েছে সকলেরই। বৃহস্পতিবার সৌরভের বাকি দুটি হার্টের ব্লকেজে স্টেন্ট বসানো হয়েছে। সম্পূর্ণ সুষ্ঠুভাবে হয় অস্ত্রপাচার প্রক্রিয়া। হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চাক্তার দেবী শেঠি, ডাক্তার অজিত দেশাই সহ সৌরভের চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে হয় সৌরভের অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি।  তবে এখনও চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট।

শুক্রবার রাতে অ্যাপোলো হাসপাতালের তরফে মেডিক্যাল বুলেটিন প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে,এদিন সৌরভকে ‘ড্রাগ ইলিউটিং’ স্টেন্ট দেওয়া হয়েছে৷ তবে স্টেন্ট বসানোর আগে সৌরভকে সেডেটিভ দেওয়া হয়৷ ফলে বেশ কিছুক্ষণ আচ্ছন্ন ছিলেন মহারাজ৷ তবে কিছুক্ষণ পরেই সৌরভ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসেন৷  বর্তমানে সৌরভকে প্রাইভেট কেবিনে জেনারেল বেডে দেওয়া হয়েছে। রাতে ভালো ঘুম হয়েছে 'মহারাজের'। সকালে উঠে প্রাতঃরাশ সেরেছেন। সম্ভবত আজ দিনভর পর্যবেক্ষণের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে সৌরভরে ছুটির বিষয়ে।

প্রসঙ্গত, জানুয়ারির ২ তারিখ প্রথম হৃদরোগে আক্রান্ত হন সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়। পরীক্ষায় তার হার্টে তিনটি ব্লকেজ ধরা পড়ে। একটি ব্লকেজের স্টেন্ট বসি ছুটি দেওয়া হয় সৌরভকে। কিন্তু ২০ দিন যেতে না যেতে ফের বুকে ব্যাথা অনুভব করেন বিসিসিআই সভাপতি। বুধবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার তার হার্টে আরও দুটি স্টেন্ট বসানো হয়। সৌরভকে দেখতে হাসপাতালে এসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফোনে সৌরভের খোঁজ নিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এখন প্রিয় 'দাদা'-র বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় ভক্তকুল।