করোনা আতঙ্কের আবহেই শুরু হল  রঞ্জি ফাইনালের শেষ দিনের খেলা। সংক্রমণ রুখতে কেন্দ্রের নির্দেশিকা অনুসারে দর্শকশূন্য গ্যালারিতে শুরু হয়েছে ম্যাচ। বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করছেন প্লেয়াররাও। কিন্তু আজই ঠিক হয়ে যাবে ২০১৯-২০ মরসুমে কোন দল হচ্ছে রঞ্জি ট্রফি চ্যাম্পিয়ন। অমন একটি গুরুত্বপূর্ণ দিনে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা হওয়ায় কিছুটা হলেও নিরাশ বাংলা ও সৌরাষ্ট্র দুই দলের প্লেয়ার থেকে কর্মকর্তারা। কিন্তু করোনা আতঙ্ক যেভাবে গ্রাস করছে গোটা পৃথিবীকে তাতে পরিস্থিতি অনুযায়ী মানিয়ে নেওয়ার কথাও বলেছেন প্লেয়াররা।

দর্শকশূন্য হলেও, রঞ্জি ফাইনালের পঞ্চম দিনের ২২ গজে কিন্তু সকাল থেকে চলছে টানটান লড়াই। চতুর্থ দিনে শুরুতে ঋদ্ধি-সুদীপরা যে লড়াই শুরু করেছিলেন, দিনের শেষে তা জারি রাখেন অনুষ্টুপ ও অর্ণব জুটি। চতুর্থ দিনের শেষে বাংলার স্কোর ছিল ৩৫৪ রানে ৬ উউকেট। পঞ্চম দিনে প্রথম ইনংসে লিড পেতে বাংলার দরকার ৭২ রান। হাতে  ৪ উইকেট। চতুর্থ দিনের শেষে ৫৮ রানে অপরাজিত ছিলেন অনুষ্টুপ মজুমদার ও ২৮ রানে অপরাজিত ছিলেন অর্ণব নন্দী। বাংলার ৩০ বছরের খরা কাটাতে ও আরও একবার বাংলাকে ভারত সেরা করতে অনুষ্টুপ-অর্ণব জুটিই শেষ ভরসা ছিল বাংলার। কিন্তু খেলার শুরুতেই অনুষ্টুপ ও আকাশ দীপের উইকেট হারিয়ে চাপে বাংলা দল।  প্রয়োজনে বাংলার টেলেন্ডাররাও তৈরি যতটা সম্ভাব লড়াই দেওয়ার জন্য। 

শেষ দিনে বাংলার লক্ষ্য একটাই  লক্ষ্য সৌরাষ্ট্রের  প্রথম ইনিংসের রান টপকে যতটা সম্ভব লিড নেওয়া। অপরদিকে পঞ্চম দিনে সকাল সকাল বাংলাকে অল আউট করে লিড নেওয়ার লক্ষ্যে ঝাঁপাবে সৌরাষ্ট্রও। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে রঞ্জি ফাইনালের শেষ দিনের প্রথম সেশনেই ঠিক হতে চলেছে কার মাথায় উঠতে চলেছে ২০১৯-২০ রঞ্জি মরসুমের শিরোপা।