কুড়ি লাখ টাকায় তাঁকে আইপিএল নিলামে দলে নিয়েছিল কেকেআর। সেই অস্ট্রেলিয় স্পিনার ক্রিস গ্রিন-এর বোলিংয়ের উপর নব্বই দিনের জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সন্দেহভাজন বোলিং অ্যাকশনের জন্য বিগ ব্যাশ লিগ-এ সিডনি থান্ডার্স দলে খেলা গ্রিন- এর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ফলে ছাব্বিশ বছর বয়সি এই স্পিনারের পক্ষে বিবিএল-এর বাকি ম্যাচগুলো খেলার সুযোগ বেশ কমে গেল। 

অস্ট্রেলিয়া ঘরোয়া টি টোয়েন্টি লিগের পর গ্রিন ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগেও ভাল বোলিং করেছিলেন। চলতি বিবিএল-এও নজর কেড়েছেন তিনি। পাওয়ার প্লে- তেও  ব্যাটসম্যানকে হাত খুলে মারার সুযোগ দেন না গ্রিন। এটাই তাঁর বোলিংয়ের সবথেকে বড় ইউএসপি। সেই কারণেই প্রতিশ্রুতিমান এই স্পিনারকে দলে নিয়েছিল কেকেআর। 

আরও পড়ুন- পাঁচ বলে পাঁচ ছক্কা, ব্যাট হাতে ঝড় তুললেন কেকেআর-এর নতুন সদস্য, দেখুন ভিডিও

বেশ কিছুদিন ধরেই সন্দেহভাজন বোলিং অ্য়াকশনের জন্য নজরে ছিলেন গ্রিন। শেষ পর্যন্ত গত সপ্তাহে সিডনি থান্ডার্স বনাম মেলবোর্ন স্টার্স ম্যাচের পরই রবিবার তাঁর বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা হয়। এর পরই তাঁর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

এমনিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এই নিষেধাজ্ঞার ফলে আইপিএল-এ বোলিং করতে কোনও অসুবিধা হবে না গ্রিন-এর। কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তাঁর বোলিং অ্যাকশনের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার পরে ভারতেও যে তাঁর উপর আম্পায়ারদের কড়া নজর থাকবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। 

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে অবশ্য জানানো হয়েছে, গোটা প্রক্রিয়াতেই সিডনি থান্ডার্স এবং ক্রিস গ্রিন পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন।