অনেক আশা নিয়ে টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বাড়াতে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুর করেছিল বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা আইসিসি। প্রতি টেস্ট সিরিজের গুরুত্ব বাড়াতেই এই পন্থা। একইসঙ্গে পয়েন্টের বিচারে প্রথম দুটি দলের মধ্যে হওয়ার কথা ছিল মেগা ফাইনাল। কিন্তু করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে সম্পূর্ণ ভেস্তে যায় গোটা ব্যবস্থা। একের পর এক দেশের টেস্ট সিরিজ বাতিলে সংশয় তৈরি হয়েছিল এই চ্যাম্পিয়শিপ বাতিল না হয়ে যায়। তবে বাতিল না হলেও, করোনার কারণে প্রতিযোগিতার নিয়ম বদলে ফেলল আইসিসি।

ওয়ার্লড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের নতুন নিয়ম অনুসারে, এবার থেকে আর মোট পয়েন্টের ভিত্তিতে নয়, পয়েন্টের শতকরা হারের ভিত্তিতে ঠিক করা হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ক্রমতালিকা। বৃহস্পতিবার এই ঘোষণা করল প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক অনিল কুম্বলের নেতৃত্বাধীন আইসিসি ক্রিকেট কমিটি। আর এই নতুন নিয়মের ফলে ক্ষতি হল ভারতীয় ক্রিকেট দলের। এতদিন পর্যন্ত বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের যেকটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে ভারতীয় দল, সেই পয়েন্টের বিচারে শীর্ষস্থানে  ছিল ভারতীয়। কিন্তু এই নতুন নিয়মের ফলে শতকরা হারে ভারতের থেকে এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া। ফলে শীর্ষ উঠে গেল ব্যাগি গ্রিণরা ও দ্বিতীয় স্থানে নেমে এল মেন ইন ব্লুরা।

নতুন নিয়ম অনুসারে এখনও পর্যন্ত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে মোট ৪টি সিরিজ খেলেছে ভারত। পয়েন্ট পেয়েছে ৩৬০। মোট ৪৮০ পয়েন্টের মধ্যে ভারতের সংগ্রহ ৩৬০ পয়েন্ট। অর্থাৎ ভারতের পয়েন্টের শতকরা হার দাঁড়াচ্ছে ৭৫। কিন্তু এই নিয়মে অস্ট্রেলিয়ার পয়েন্টের হার গিয়ে দাঁড়াচ্ছে ৮২.২। তাই তারাই এখন পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। শতকরা হার ৬০.৮ নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারতীয় দল। এই নিয়মেই জুন মাসে আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে অংশ নেবে প্রথম দুই দল।