ধরমশালায় পন্ড হয়েছে প্রথম ম্যাচ। একটানা বৃষ্টিতে হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের মাঠটি হয়ে পড়ে খেলার অযোগ্য। শেষপর্যন্ত ক্রিকেট ভক্তদের সব আশায় জল ঢেলে বাতিল হয়ে গেল ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম একদিনের ম্যাচ। যা দেখতে সকাল থেকেই স্টেডিয়াম মুখি হয়েছিল ধর্মশালার ক্রিকেটপ্রেমী জনতা। কিন্তু তাঁদেরকে ফিরতে হল হতাশ হয়েই। মাঠে বল গড়াল না একটিও। টসও করা গেল না। দু'দিন ধরেই বৃষ্টি চলছে হিমাচলের বিভিন্ন অংশে। তার জেরে সকাল থেকেই মাঠ ভিজে ছিল। কিন্তু পরের দিকে বৃষ্টি শুরু হয়। সে বৃষ্টি আর থামেনি। সারা দিনই কখনও কম আবার কখনও বেশি বৃষ্টিতে সারাক্ষণই মাঠ ঢাকাই ছিল। 

প্রথম ম্যাচ বাতিল হওয়ার সাথে পরের দুটি ম্যাচের জন্য হলো গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা। বিসিসিআইয়ের তরফ থেকে জানানো হলো যে সিরিজের পরবর্তী ম্যাচগুলি অনুষ্ঠিত হবে খালি স্টেডিয়ামে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতেই এমন সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছে বিসিসিআই। আইপিএলের ভবিষ্যৎ নিয়ে বৈঠকে বসার আগে এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত জানালো বিসিসিআই। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে লজ্জাজনক ভাবে ওয়ান-ডে সিরিজ খুইয়ে এসেছে ভারতীয় দল। সেইখান থেকে ঘুরে দাঁড়াতে এই সিরিজ জিততে চাইছে তারা। কিন্তু সেই কাজে এবার তারা বঞ্চিত হবেন গ্যালারির সমর্থন থেকে। 

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজে জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তন করেছেন শিখর ধাওয়ান, ভুবনেশ্বর কুমার, হার্দিক পান্ডিয়ার মতো তারকারা। তিনজনেই মরিয়া থাকবেন পারফরম্যান্স করে আবার দলে নিজেদের জায়গা পাকা করতে। ম্যাচের আগের দিনগুলিতে তিনজনকেই দেখা গেল অনেকক্ষণ নেট প্র্যাকটিস করতে। ভারতের আর এক তারকা রোহিত শৰ্মা এখনও সুস্থ হয়ে উঠতে পারেননি। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে তিনি যা চোট পেয়েছিলেন তা এখনও সারেনি। ওই চোটের জেরে বাকি নিউজিল্যান্ড সফরে দলের বাইরেই থাকতে হয়েছিল রোহিত শর্মাকে।