অবশেষে রোহিত শর্মার ফিটনেস নিয়ে ধোঁয়াশা কাটল। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ চলাকালীন হ্যামস্ট্রিং-এ চোট পেয়েছিলেন জাতীয় দলের এই ওপেনার। তারপর থেকে তাঁর চোট কতটা গুরুতর, কবে তিনি ভারতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন -এইরকম নানা বিষয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল। যা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছিলেন স্বয়ং অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তবে শুক্রবার সকালে বেঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট একাডেমি (এনসিএ)-তে ফিটনেস টেস্টের পর, ফিজিওরা তাঁকে ,সম্পূর্ণ ফিট ঘোষণা করেছেন। কাজেই টেস্ট সিরিজ খেলতে তাঁর আর কোনও বাধা রইল না।

গত ১৯ নভেম্বর, হ্যামস্ট্রিং-এর চোট নিয়ে বেঙ্গালুরু এনসিএ-তে এসেছিলেন রোহিত শর্মা। এতদিন ধরে তাঁর চোটের পরিচর্যা চলেছে। তারপর এদিন সকালে ফিজিও-দের সামনে ফিটনেস টেস্ট দেন রোহিত। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে এনসিএ-র একটা সূত্র জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কঠোর সূচির জন্য জাতীয় দলের এই ওপেনার তৈরি বলে জানিয়েছেন ফিজিও-রা। তিনি ফিটনেস পরীক্ষায় ভালোভাবেই উত্তীর্ণ হয়েছেন। তবে তিনি শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার বিমানে উঠবেন কি না, সেটা বিসিসিআই এবং নির্বাচক কমিটি ঠিক করবে। তবে সূত্রের খবর, আগামী ১৪ ডিসেম্বরই অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবেন রোহিত।

হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের কারণে প্রথমে সম্পূর্ণ অস্ট্রেলিয়া সফর থেকেই বাদ দেওয়া হয়েছিল রোহিত শর্মাকে। তারপরও রোহিত আইপিএল খেলেছিলেন। তাই তার চোটের প্রকৃতি নিয়ে ব্যাপক হইচই পড়েছিল। পরে গত ৮ নভেম্বর এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে বিসিসিআই জানিয়েছিল, মেডিকেল টিম রোহিত শর্মার ফিটনেস পর্যবেক্ষণ করেছে। এই বিষয়ে সর্বভারতীয় সিনিয়র সিলেকশন কমিটিকেও জানানো হয়েছে। রোহিত শর্মার সঙ্গে আলোচনা করেই তাঁর ফিটনেস পুনরুদ্ধারের জন্য তাঁকে অস্ট্রেলিয়ায় ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। তবে টেস্ট সিরিজ অর্থাৎ বর্ডার-গাভাস্কর ট্রফির জন্য ভারতের টেস্ট দলে তাঁকে রাখা হয়েছে।