তৃতীয় টি২০ ম্যাচে  রুদ্ধশ্বাস জয় পেল ভারতীয় দল। টি২০ সিরিজে নিজেদের দাপট বজায় রেখে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নিল রোহিল শর্মার দল। প্রথমে ১৭৪ রান করলেও, সেই রান তাড়া করতে গিয়ে ভারতীয় পেসার দীপক চাহরের দাপটে মাত্র ১৪৪ রানেই শেষ হয়ে গেল বাংলা টাইগার্সদের ইনিংস। ৩০ রানে তৃতীয় টি২০ নাগপুরে জিতে সিরিজ জিতে নিল রোহিত শর্মার দল। বল হাতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ৩ ওভার ২ বলে ৭ রান দিয়ে ৬ উইকেট নিলেন চাহর।

রবিবার নাগপুর জয়কে লক্ষ্য করেই সিরিজের মরণ-বাচন ম্যাচে নেমেছিল ভারতীয় দল। টসে হেরে প্রথমে এদিন ব্যাটিং পেলেও, সেভাবে শুরুটা ভালো করতে পারেননি রোহিত শর্মারা। প্রথমেই মাত্র ২ রান করে সাজঘরে ফেরেন রোহিত। একই সঙ্গে এদিন মারকুটে মেজাজে ইনিংস শুরু করলেও মাত্রস ১৯ রানেই সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার শিখর ধাওয়ান। তবে এদিন ভারতের হয়ে তুরুপের তাস হিসাবে দেখা যায় শ্রেয়স আইয়ার ও লোকেশ রাহুলকে। মাঝের ওভারে দুরন্ত পার্টনারশিপ করতে দেখা যায় এই ভারতীয় দুই ব্যাটসম্যানকে। ব্যাট হাতে ৫২ রান করেন রাহুল ও ৩৩ বলে ৬২ রানের ঝড় ইনিংস খেলেন শ্রেয়স। তবে এদিনও ব্যাট হাতে ভারতের হয়ে ব্যর্থ হন ঋষভ পন্থ। মাত্র ৬ রানে সৌম্য সরকারে বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন পন্থ। শেষে ২২ রানে অপরাজিত ছিলেন ভারতের মণীশ পাণ্ডে ও ২ রান করেন শিভম দুবে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান করে ভারত।

এই রান তাড়া করতে গিয়ে এদিন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যান মহম্মদ নইম ভারতের কপালে কিছুটা চিন্তার ভাজ ফেললেও ব্যাট হাতে পারেননি বাকি ব্যাটসম্যানরা। দীপক চাহারের দাপটে এদিন শেষ হয়ে যায় বাংলা টাইগার্সদের দাপট। দীপকের দুরন্ত স্পেলে এদিন কার্যত শেষ হয়ে যায় বাংলাদেশ। ভারতের বিরুদ্ধে ১৭৫ রানের ইনিংস তাড়া করতে গিয়ে মাত্র ৮১ রান করেন নইম। একই সঙ্গে ২৭ করেন মিথুন। তবে বাকিরা কোনও ভাবেই বড় রান করতে পারেননি। মাঝের ওবারে কিছুটা বাংলাদেশ ভারতের ওপরে চেপে বসে চেষ্টা করলেও, শিভম দুবে ও দীপক চাহারের বলে শেষ হয়ে যায় বাংলাদেশ দল। বল হাতে ৩ উইকেট তুলে নেন দুবে। একই সঙ্গে একাহাতে ৬ উইকেট নেন দীপক চাহার। একটি উইকেট নেন যুজবেন্দ্র চাহল। ১৯.২ বলে মাত্র ১৪৪ রানেই অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ দল। ৩০ রানে ম্যাচ জিতে নেয় ভারতীয় দল।