দক্ষিণ আফ্রিকার করোনা পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় প্রোটিয়াদের দেশে টেস্ট সিরিজ খেলতে যাচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফ থেকে ইতিমধ্যেই এই ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে। প্লেয়ারদের স্বাস্থ্য নিয়ে কোনও রকম ঝুঁকি নিতে নারাজ অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। তকারণ বিগত ডিসেম্বর মাস থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার করোন পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হচ্ছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ বাতিল হওয়ায় বর হয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌছে গেল কিউইরা।

বর্তমানে বর্তমানে ৪২০ পয়েন্ট বা ৭০ শতাংশ নিয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কেন উইলিয়ামসনের দল। অস্ট্রেলিা বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ বাতিল হওয়ায় তাদের অজিদের তাদের টপকানোর সম্ভাবনা নেই। ফলে লর্ডসে ফাইনালে একপ্রকার নিশ্চিৎ দেখা যাচ্ছে কেন উইলিয়ামসন, ট্রেন্ট বোল্টদের। অপরদিকে,অস্ট্রেলিয়ায় ২-১ ব্যবধানে সিরিজ ছিনিয়ে নেওয়ার ফলে অনেকটাই স্বস্তিতে ভারতে ফিরেছিলেন অজিঙ্কা রাহানেরা। আপাতত ৪৩০ পয়েন্ট এবং ৭১.৬৭ শতাংশ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে টিম ইন্ডিয়া। ফলে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের ২-০, ২-১  বা ১-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতলেই ফাইনালের টিকিট পাকা হয়ে যাবে ভারতের।

আপাতত ৩৩২ পয়েন্ট নিয়ে ৬৯.১৬ শতাংশ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আর  অঙ্কের ৪১২ পয়েন্ট এবং ৬৮.৭ শতাংশ লিগ টেবিলের চতুর্থ স্থানে রয়েছে ইংল্যান্ড। ফলে ভারত সিরিজ যদি এক ম্য়াচের ব্যবধানে হারে তাহলে ক্ষীণ সম্ভাবনা থাকছে অস্ট্রেলিয়ার। অপরদিকে ভারতে এসে যদি বিরাট ব্রিগেডকে ০-৪, ০-৩, বা ১-৩ ব্যবধানে হারাতে পারে রুটরা,তাহলেই ফাইনালের টিকিট পাকা হতে পারে ইংল্যান্ডের। যে কাজ অনেকটাই কঠিন। ফলে ইংল্যান্ডেপ বিরুদ্ধে যে কোনও ব্যবধানে সিরিজ জিতলেই লর্ডসে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে মুখোমুখি হবে ভারত-নিউজিল্যান্ড।