ক্রাইস্টচার্চে ব্যর্থতা অব্যহত থাকলো কোহলির। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে নামার পর থেকে ব্যর্থতা পিছু ছাড়ছে না তার। যে সমস্ত ভুল আগে তার কাছ থেকে কোনওভাবেই আশা করা যেত না এমন সমস্ত ভুল করে মাঠে উইকেট ফেলে রেখে আসছেন ভারতীয় অধিনায়ক। তার এই ফর্ম থেকে চিন্তায় ভাঁজ পড়েছে ভারতীয় ম্যানেজমেন্টের কপালে। এখন শুধু প্রশ্ন একটাই। কবে আবার নিজের চেনা ফর্মে ফিরবেন ভারতীয় অধিনায়ক?

শেষ ২১ টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে কোনো শতরান নেই কোহলির। একসময় প্রায় প্রতি ম্যাচে যিনি বড় রান করতেন তার এহেন ফর্ম থেকে ভক্তরা আশঙ্কায় ভুগছেন। গোটা নিউজিল্যান্ডে ট্যুরে মোট ১০ টি ইনিংস খেলেছেন কোহলি। সবকটি ইনিংস মিলিয়ে মাত্র ২০৪ রান করেছেন। পুরো নিউজিল্যান্ড ট্যুরে মাত্র ১ বার পঞ্চাশের গন্ডি পেরোতে পেরেছেন। সেবারও পঞ্চাশ পেরোনো মাত্র ভারত অধিনায়ক ভুল শট নির্বাচন করে উইকেট হারিয়েছিলেন। 

ওয়েলিংটনের বেসিন রিসার্ভে প্রথম ও দ্বিতীয় দুই ইনিংসেই উইকেটের পেছনে খোঁচা দিয়ে ফিরেছিলেন তিনি। ক্রাইস্টচার্চে ফিরলেন এল.বি.ডব্লিউ হয়ে। এবার তার ঘাতক সাউদি। এই নিয়ে টেস্টে দশম বার সাউদির বলে আউট হয়ে মাঠ ছাড়তে হলো ভারতীয় অধিনায়ককে। নন-স্ট্রাইকে থাকা পূজারার সাথে আলোচনা করে রিভিউও চান কোহলি। কিন্তু সেখানেও আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই বহাল থাকে। ফলে বাধ্য হয়ে ১৫ বল খেলে ৩ রান করে ফিরতে হয় কোহলিকে।

ভারতের তরফ থেকে পৃথ্বী শ, চেতেশ্বর পূজারা, হনুমা বিহারী ৩ জনে লড়াই করার চেষ্টা করেন। অর্ধশতরান করেন তিনজনই। তা সত্ত্বেও প্রথম দিনেই ২৪২ রানে অল আউট হয়ে যায় ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে নিউজিল্যান্ড ব্যাট করতে নেমে দিনের শেষে কোনো উইকেট না খুইয়ে ৬৩ রান তুলেছে।