কিছুদিন আগে ডোপিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়েছিলেন তরুণ ব্যাটসম্যান পৃথ্বী শ। সম্প্রতি সি সময়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে মুখ খুলেছেন তিনি। ২০১৯ সালের জুলাই মাসে তাকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে ৮ মাসের জন্য ব্যান করা হয়। তার ইউরিনের স্যাম্পেলে টার্বুটাইলেনের নমুনা পাওয়া গিয়েছিল যাকে ওয়ার্ল্ড অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সি নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছে অনেক আগেই। 

আরও পড়ুনঃফের করোনার কোপ ক্রীড়া বিশ্বে, পিছিয়ে গেল ওয়ার্ল্ড অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপ

ব্যান কাটিয়ে ফিরে সর্বপ্রথম রঞ্জি ট্রফিতে ক্রিকেট খেলতে নামেন ২০ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান। পরে তাকে ভারতীয় এ দলের হয়ে নিউজিল্যান্ডে পাঠানো হয়। তার পরে ভালো পারফরম্যান্সের দরুণ নিউজিল্যান্ড ট্যুরে ভারতের ওয়ান ডে এবং দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের দলেও জায়গা পান তিনি। ফেব্রুয়ারি মাসে দলের প্রধান ওপেনার দের চোট থাকায় ভারতীয় ওয়ান ডে দলে তিনি ওপেনার হিসাবে নামার সুযোগ পান। 

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় ফের ৩১০০ কেজি চাল বিতরণ করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

ওয়ান ডে সিরিজের পর দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজেও তিনি ওপেনিং করার সুযোগ পান। কিন্তু দুই সিরিজের একটিতেও তিনি খুব ভালো কিছু করে দেখাতে পারেনি। তিন ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ ভারত হারে ৩-০ ফলে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজেও কিউয়িদের হাতে হোয়াইটওয়াশ হতে হয় ভারতকে। ওয়ান ডে সিরিজে পৃথ্বীর সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ৪০। টেস্ট সিরিজে ৪ টি ইনিংসেই ওপেন করে মাত্র একবার অর্ধশতরানের গন্ডি পেরোতে পেরেছিলেন তিনি। 

আরও পড়ুনঃবিরাট কোহলিকে পিছনে ফেলে উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমনাকের ২০২০-র সেরা ক্রিকেটার হলেন বেন স্টোকস

দেশে লকডাউন চলায় আপাতত বাড়িতেই রয়েছেন তিনি। বাড়ি থেকেই একটি সাক্ষাৎকারে তিনি ব্যান থাকার সময়কে অত্যাচারের সাথে তুলনা করেছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন তিনি কোন ওষুধ খাওয়া উচিত এবং কোনটি নিষিদ্ধ তা নিয়ে কোনও সুস্পষ্ট ধারণা রাখতেন না। এই ঘটনা তাকে সতর্ক করেছে। কখন তিনি সবসময় বিসিসিআইয়ের দ্বারা মনোনীত চিকিৎসকদের সাথে আলোচনা করে তার দরকারমতো ওষুধ নিয়ে থাকেন।