এই বছরের শুরুতেই নারী অবমাননাকারী ও লিঙ্গবিদ্বেষী মন্তব্য করার জন্য তীব্র বিতর্কে জড়িয়েছিলেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। ধীরে ধীরে সেই বিতর্কের পেশ কাটিয়ে মাঠে দুরন্ত পারফরম্য়ান্সে ভক্তদের মধ্যে নিজের জায়গা অনেকটাই পুনরুদ্ধার করতে পেরেছেন তিনি। কিন্তু ফের একবার বিতর্ক তৈরি হল তাঁকে ঘিরে। এবার অবশ্য তিনি কিছু করেননি, বরং তাঁকেই শিকার হতে হয়েছে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যের।

টেলি অভিনেত্রী ক্রিস্টাল ডিসুজা, সম্প্রতি হার্দিকের সঙ্গে তাঁর একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সঙ্গে হার্দিককে নিজের ভাই বলে উল্লেখ করেন। সেই ছবির তলায় অনেকেই অনেক মন্তব্য করেছেন। তার মধ্যে সমীর নামে এক ভক্ত সীমা লঙ্ঘন করে বর্ণবিদেষী মন্তব্যে বিদ্ধ করেন হার্দিককে।

তিনি ভারতীয় ক্রিকেটারকে 'কালু ভাই' বলে সম্বোধন করেন। এখানেই থামেননি। তিনি বলেন হার্দিকের ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে জায়গা পাওয়া উচিত।

এরপরই ওই মন্তব্য়ের কড়া সমালোচনা করেছেন হার্দিকের ভক্তরা। এমনকী তাঁকে এমনিতে পছন্দ করেন না এমনও কেউ কেউ ওই মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন। ক্রিস্টাল ডিসুজার বন্ধু অভিনেতা অপরশক্তি খুরানা বলেন, এই ধরণের মন্তব্য করা ও এই ধরণের ভাষা ব্যবহার করা অনুচিত। হার্দিককে একজন পারফর্মার বলে উল্লেখ করে তিনি এই ধরণের মন্তব্য না করে ভারতীয় দলকে উৎসাহিত করার জন্য আবেদন করেন। ক্রিস্টাল নিজেও ওই মন্তব্যের সমালোচনা করেন এবং সমর্থন দেওয়ার জন্য অপরশক্তিকে ধন্যবাদ জানান।

আরেক হার্দিক ভক্ত জানিয়েছেন যে ব্যক্তি দেশকে এত গর্বের মুহূর্ত এনে দিয়েছে এবং আগামী দিনেও এনে দেবে, তাকে এমন কথা বলা অনুচিত। তাঁর সাফ কথা সমীর নামে ওই ব্যক্তি ভারতীয়দেরই নাম কালিমালিপ্ত করেছেন। আরেকজন বলেছেন, বিভিন্ন কারণেই তিনি হার্দিককে পছন্দ করেন না, কিন্তু তাই বলে গায়ের রঙ তুলে কাউকে অপমান করাকেও তিনি সমর্থন করেন না।

এর আগে 'কফি উইদ করণ' টক শো-তে গিয়ে মহিলাদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করে প্রবল সমালোচিত হয়েছিলেন হার্দিক পাণ্ডিয়া ও কেএল রাহুল। যার জেরে একসময় তাঁদের ক্রিকেট কেরিয়ারই প্রশ্নচিহ্নের মুখে পড়েছিল। অবশেষে ২০ লক্ষ টাকা করে জরিমানা দিয়ে সেই পর্ব মেটে। তারপর থেকে কিন্তু আইপিএল-এ দারুণ ফর্মে আছেন হার্দিক। বিশ্বকাপেও তাঁর এই ফর্ম বজায় থাকবে, ভক্তরা এমনটাই আশা করছেন।