ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পর কেটে গিয়েছে সাতটা বছর। কিন্তু নিজের ২৪ বছরের ক্রিকেট জীবন তো অবশ্যই নিজের ক্রিকেট কেরিয়ার শুরুর দিনগুলিও এখনও ভোলেননি সচিন তেন্ডুলকর। ভোলেননি নিজের ক্রিকেট কেরিয়ার শুরুর দিনগুলির সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন মানুষদের অবদানের কথা। কিন্তু নিজের ছোট বেলার আন্টের কথা মনে রাখা ও তার জন্মদিন পালন করা, এই কাজটি করার জন্য হয়তো শুধু একজন মহান ক্রিকেটার হওয়ার পাশাপাশি ভাল মানুষ হওয়ারও প্রয়োজন হয়। আর সেই  কাজটিই করে দেখালেন সচিন তেন্ডুলকর।

স্মৃতির পাতা উল্টে সম্প্রতি সচিন তেন্ডুলকর চলে গিয়েছিলেন তার ছেলে বেলার আন্টের বাড়িতে। সেখানে কাটানো নিজের ছেলে বেলার নানা স্মৃতির কথা জানান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একশো সেঞ্চুরির মালিক। যেই ঘরে স্কুল জীবনের ৪ বছর কাটিয়েছেন সেই ঘরটি দেখানোর পাশাপাশি সেই ঘর থেকেই কীভাবে ব্য়াকফুট সফট হ্যান্ড ডিফেন্স  শিখেছিলেন ছোটে নবাব, সেই স্মৃতিও সকলের সঙ্গে ভাগ করে নেন। তিনি দেখান, ঘরের কোন জায়গায় একটি মোজার ভিতরে বল ঢুকিয়ে তিনি ঝুলিয়ে রাখতেন এবং ঘণ্টার পর ঘণ্টা সেখানে ব্য়াকফুট সফট হ্যান্ড ডিফেন্স প্র্যাকটিস করতেন। আর তার আন্ট যে সবসময় তার সঙ্গে থাকতেন সেই কথাও জানান সচিন।

 

 

সেদিনের সেই ক্ষুদে সচিন সচিন দীর্ঘ ক্রিকেট জীবন পেরিয়ে অবসর উপভোগ করছেন। কিন্তু তিনি এখনও ভোলেননি তার আন্টকে। আন্টের জন্মদিনও পালন করেন মাস্টার ব্লাস্টার। কেকে কেটে পালন করা হয় জন্মদিন। আন্টের কাছ থেকে আশীর্বাদও নেন সচিন। গোটা ভিডিওটি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া চ্যানেলে শেয়ার করেন সচিন। যা খুবই পছন্দ করেছেন সচিন অনুগামী। এমনকী যে ব্যাকফুট ডিফেন্সের জন্য বিখ্যাত সচিন তেন্ডুলকর তা কোথা থেকে শিখেছিলেন লিটল মাস্টার তা জানতে পেরে খুশি সকলেই।