একদিন যেতে না যেতেই প্রাক্তন পাক ক্রিকেটারকে ফের কড়া জবাব দিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার তথা বিজেপির সাংসদ প্রার্থী গৌতম গম্ভীর। এক সর্বভারতীয় প্রচার মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে গম্ভীর বললেন, কিছু কিছু মানুষের বযসের সঙ্গে সঙ্গে মানসিক বৃদ্ধি ঘটে না। আফ্রিদির বয়সটা ৩৯ বছরের মতো, কিন্তু মনটা থমকে রয়েছে ১৬ বছরে।

সেই খেলার দিন থেকেই প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার শাহিদ আফ্রিদি ও প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীরের মধ্য়ে বনিবনা ছিল না। দুই দেশের রাজনৈতিক সম্পর্কের উত্থান-পতনের মধ্যেও অনেক ভারত-পাক ক্রিকেটারকেই একে অপরের ভালো বন্ধু হয়ে উঠতে দেখা যায়। গম্ভীর-আফ্রিদির কাহিনিটা একেবারেই সেইরকম নয়। ২০০৭ সালে তো একবারে মাঠের মধ্যে তীব্র বাদানুবাদে জড়িয়ে আইসিসির বিধি ভঙ্গ করায় দুইজনেরই জরিমানা হয়েছিল। খেলা ছাড়ার পরও দুই প্রাক্তন ক্রিকেটারের মধ্যে উত্তেজনার আঁচ এতটুকু কমেনি। নতুন করে গোলাবর্ষণ শুরু করেছেন দুজনেই।

গেমচেঞ্জার

গত মঙ্গলবার প্রকাশিত হয়, শাহিদ আফ্রিদির আত্মজীবনী 'গেমচেঞ্জার'। সেই বইয়ে আফ্রিদি, গম্ভীরকে অনেকখানি জায়গা দিয়েছেন। বলেছেন কিছু শত্রুতা ছিল পেশাদারী আর কিছু ছিল ব্যক্তিগত। তাঁর মতে গম্বীরের কোনও ব্যক্তিত্ব নেই, ক্রিকেটের  ইতিহাসে মনে রাখার মতো কিছু করেননি, কোনও ভালো রেকর্ডও নেই - থাকার মধ্যে আছে ঔদ্ধত্য।

ব্র্যাডম্যান-বন্ডের মিশ্রন

ডন ব্র্যাডম্যান আর জেমস বন্ডের মিশ্র রূপের মতো আচরণ করেন গম্ভীর এমন কথাও লিখেছেন আফ্রিদি। জানিয়েছেন, এমন মানুষদের করাচীতে 'সরিয়াল' বলা হয়। বস্তুত গম্ভীর বড়ই নেতিবাচক মানসিকতার বলে মত প্রকাশ করেন আফ্রিদি।

চিকিৎসার জন্য ভিসা

গম্ভীরও কিন্তু জবাব দিতে দেরী করেননি। বর্তমানে তিনি রাজনীতিতে যোগ দিয়েছেন। লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির হয়ে প্রতিদদ্বন্দ্বিত করছেন। উত্তরে কিছুটা হলেও রাজনৈতিক ছোঁয়াও রয়েছে। টুইট করে গম্ভীর জানান, আফ্রিদি হাস্যকর কথা বলেছেন। বলেন ভারত এখনও পাকিস্তানিদের চিকিৎসার জন্য ভিসা দিচ্ছে। কাজেই আফ্রিদিকে ভারতে এলে তিনি নিজে সঙ্গে করে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে নিয়ে যাবেন।

পাকিস্তানিরা চিরকাল স্বাগত জানায়

এর জবাবে শনিবার ফের মুখ খোলেন আফ্রিদি। বলেন, গম্ভীরেরই সম্ভবত মাথার কোনও সমস্যা রয়েছে। তিনি বর্তমানে পাকিস্তানে হাসপাতালের কাজের সঙ্গে যুক্ত। তাই গম্ভীরকে ভালো চিকিৎসা পরিষেবা দিতে পারবেন। ভারত সরকার পাকিস্তানিদের সহজে ভিসা দিতে চায় না, কিন্তু পাকিস্তানের মানুষ ও সরকার সবসময়ই ভারতীয়দের তাদের দেশে স্বাগত জানিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন প্রাক্তন পাক অলরাউন্ডার।

বয়স ৩৬-৩৭, মনের বয়স ১৬

আফ্রিদির প্রকৃত বয়স ৩৯ হলেও গম্ভীর রবিরার বলেন আফ্রিদির বয়স ৩৬-৩৭ হলেও মনের বয়স ১৬তেই আটকে রয়েছে। এছাড়া এদিন তিনি তাঁর রেকর্ডের কথাও তুলে ধরেন বলেন, তিনি একবার আইসিসির বিচারে সেরা টেস্ট ক্রিকেটার হয়েছেন। টেস্ট সিরিজ জিতেছেন, বিশ্বকাপ জিতেছেন। এই রেকর্ডই বলে দে.য় দেশেৎ জ্য তিনি কতটা কী করেছেন।

দুই ক্রিকেটারের কেউই আর ব্যাট-বল হাতে মাঠে নামেন না।  কিন্তু, ভিতরের প্রতিদ্বন্দ্বিতার শিকড় যে কত গভীরের প্রোথিত তা বর্তমানের এই কথার লড়াইতেই স্পষ্ট। এটাই সম্ভবত ক্রিকেট খেলাটার আকর্ষণ বাড়িয়ে তোলে।