ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সর্ব সম্মত ভাবে নব নির্বাচিত সভাপতি পদে বসলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। বুধবার সরকারি ভাবে এই পদের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন সৌরভ। দীর্ঘ তিন বছর ধরে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড ছিল জরুরি তৎপরতার মধ্যে। তাই এতদিন বোর্ডের সব কিছুর মাথায় বসানো হয়েছিল সিওএকে। সুপ্রিম কোর্ট গঠিত সিওএ-র মেয়াদও শেষ হল বুধবার। আর সেই সঙ্গে বোর্ডের মসনদে দায়িত্বভার তুলে নিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। একই সঙ্গে নতুন দল নিয়ে শুরু হল তাঁর পথচলা।

 

এই মুহূর্তে মাত্র ১০ মাসের জন্য বিসিসিআই-র সভাপতি পদ পেলেন সৌরভ। লোধার নিয়ম অনুযায়ী সৌরভের মেয়াদও বাকি মাত্র ১০ মাস। আর সেই অনুযায়ী এই মুহূর্তে ১০ মাসের জন্য এই পদে বসছেন মহারাজ। তারপর তিন বছরের কুলিং অফে যেতে হবে বাংলার দাদাকে। একই সঙ্গে ভারত অধিনায়ক হিসাবে এই প্রথম বোর্ডের সভাপতি পদ পেয়ে একটি নজির গড়লেন মহারাজ। একই সঙ্গে বুধবার সৌরভের দলে এবার নয়া সতির্থরা। সভাপতি পদে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের পাশাপাশি বোর্ডের সহ-সভাপতি হলেন মহিম ভর্মা। সচিব পদে এলেন ভারতের গৃহ মন্ত্রী অমিত শাহের পুত্র জয় শাহ। বোর্ডের নয়া যুগ্ম সচিব হিসাবে দায়িত্ব নিলেন জয়েশ জর্জ। কোযাধক্ষ্য পদে এলেন অরুণ সিং ধুমল। গভার্নিং বডি ও আইএপএল কমিটির চেয়ারম্যান হিসাবে বোর্ডে এলেন ব্রিজেশ পটেল।

 

 

মাত্র ৪৭ বছর বয়সেই বিসিসিআই-র সভাপতি হলেন সৌরভ। স্বাধীন ভারতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এই প্রথম কোনও ক্রিকেটার বসলেন সভাপতি পদে। একই সঙ্গে কনিষ্ঠতম বোর্ড সভাপতি হিসাবে এই পদের দায়িত্ব নিলেন সৌরভ। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এই মুহূর্তে এই পদ পেয়েছেন সৌরভ। একই সঙ্গে নব নির্বাচিত কমিটি নিয়েই এদিন বোর্ডের মিটিংও অনুষ্ঠিত হল মুম্বইয়ে। একই সঙ্গে এদিন ভোটাভুটি না হলেও এপেক্স কমিটির বৈঠকে এদিন দায়িত্ব তুলে দেওয়া হল নয়া সদস্যদের হাতে। পাশাপাশি আলোচনায় উঠে আসবে নতুন নিয়ম থেকে শুরু করে রাজ্য সংস্থাগুলির সমস্যা ও বাজেট নিয়েও একটা আলোচনা হল বোর্ডের এই মিটিংয়ে। একই সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট বুধবার বসতে চলেছেন নির্বাচকদের সঙ্গেও।