ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা সবে শেষ হয়েছে, টিভি পর্দায় একটা ছবি ভেসে ওঠে, ভারতীয় দলের ড্রেসিংরুমে মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাঁর পাশেই ছিলেন জাতীয় দলের নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদও। তখন থেকেই একটা গুঞ্জন শুরু হয়। ধোনি কী আবার জাতীয় দলের জার্সিতে ফিরতে চলেছেন। সেই বার্তায় কি নির্বাচক প্রধানকে দিলেন মাহি। ২৪ তারিখ নির্বাচকদের সঙ্গে ধোনির প্রসঙ্গে কথা বলবেন বোর্ড সভাপতি সৌরভ। দেখা করবেন ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গেও। কিন্তু প্রশ্ন সৌরভ, বিরাটের সঙ্গেও কী ধোনির বিষয়ে কথা বলেছেন? 

আরও পড়ুন - ‘পিচের তোয়াক্কা করি না’ দক্ষিণ আফ্রিকাকে হোয়াইট ওয়াশ করে বিস্ফোরণ শাস্ত্রীর

রাঁচি টেস্ট শেষ হওয়ার পর সাংবাদিক সম্মেলনে এসে বিরাটকে এই প্রশ্নের মুখে পরতে হল। হাসি মুখেই বিরাট জানালেন, সৌরভ বোর্ড সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পরই দাদাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। সৌরভ যখনই তাঁকে কোনও বিষয়ে কথা বলার জন্য ডাকবেন তখনই যাবেন বলেও জানালেন বিরাট। কিন্তু ধোনি? হাসি মুখে ভারত অধিনায়ক বলছেন এই বিষয়ে সৌরভের সঙ্গে তাঁর কোনও কথা হয়নি। ২৪ তারিখ যদি সেই প্রসঙ্গ ওঠে তখন কি বলবেন ভারত অধিনায়ক? না এমন প্রশ্ন সংবাদিক সম্মেলনে করা হয়নি। তাই বিরাটের উত্তরটাও এখনও অজানই থেকে যাচ্ছে। 

আরও পড়ুন - সিওএকে কোটি টাকার সাম্মানিক দিতে হবে বিসিসিআইকে, রায় সুপ্রিম কোর্টের

তবে এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে বিরাট আরও একটা বিষয় নিয়ে কথা বললেন। ক্রিকেট মহলের মতে বিষয়টি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে যে তিনটি শহরে ভারত খেললো সেই তিনিট শহরেই কার্যত ফাঁকা মাঠে খেলতে হল দুই দলকে। টেস্ট ক্রিকেট মাঠে দর্শক সংখ্যা ক্রমশ কমছে। সেই দিকটা মাথায় রেখেই বিরাট নিডের মতামত দিলেন। ভারত অধিনায়কের মতে টেস্ট ক্রিকেট খেলার জন্য দেশের পাঁচটি শহর বাল স্টেডিয়ামকে বেছে নেওয়া হোক। যেমনটা হয় অস্ট্রেলিয়া বা ইংল্যান্ডে। অন্য ভেনুতে হোক একদিনের ক্রিকেট ও টেস্ট ক্রিকেট। ২৪ তারিখ সৌরভের সঙ্গে বৈঠকে তাহলে কি নিজের এই মতামত জানাবেন বিরাট।  সেটা সেদিনই বোঝা যাবে। আধুনিক প্রশাসক সৌরভও চাইছেন ভারতীয় ক্রিকেটের জরুরি অবস্থা কাটিয়ে তুলতে হবে। সেই প্রক্রিয়ায় বিরাটের এই মত কতটা জায়গা করে নিতে পারে সেটাও দেখার। 

আরও পড়ুন - ভারতীয় দলের ড্রেসিংরুমে ধোনি, ফিরছেন কি জাতীয় দলে, তুঙ্গে জল্পনা