ইংল্যান্ডে ফিরতে চেয়েও ফিরতে পারছেন না প্রাক্তন কিউয়ি পেসার ইয়ান ও'ব্রায়েন। দুই সন্তান এবং স্ত্রী কে নিয়ে এখন ইংল্যান্ডেই বাস করেন তিনি। স্ত্রী-এর স্বাস্থ্য নিয়ে এর মধ্যেই চিন্তিত হয়ে পড়েছেন নিউজিল্যান্ডের হয়ে তিনটি ফরম্যাটেই মাঠে নামা এই ক্রিকেটার। তিনি জানিয়েছেন তার স্ত্রী-র এমনিতেই ফুসফুস সংক্রান্ত সমস্যা আছে। তারমধ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ মহামারীর আকার নিচ্ছে। তাই এই সময়টা তার স্ত্রী-র কাছে খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। 

আপাতত ওয়েলিংটনে রয়েছেন ও'ব্রায়েন। ইংল্যান্ডে তিনি তার স্ত্রী রোজি এবং দুই সন্তান - জেইন এবং আলেথিয়া কে নিয়ে বসবাস করেন। এর মধ্যে তিনি নিউজিল্যান্ডে এসেছিলেন মানসিক কিছু সমস্যার থেকে মুক্তি পাওয়ার উদ্দেশ্যে। কিন্তু দেশে ফিরে এখন বিশ্রী সমস্যায় পড়েছেন ৪৩ বছরের প্রাক্তন কিউয়ি ক্রিকেটার। 

একটি সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, স্ত্রী কে নিয়ে চিন্তার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। ফুসফুসে সমস্যার কারণে উনার যদি কোনোরকম সংক্রমণ হয় তবে তার স্ত্রী-র জীবন মরণ সমস্যা দেখা যেতে পারে। একসময় নিউজিল্যান্ডের হয়ে তিনটি ফরম্যাটেই খেলেছেন তিনি। ২০০৫ সাল থেকে ২০০৯ সালের মধ্যে তিনি কিউয়ি ক্রিকেট দলের হয়ে মোট ২২ টি টেস্ট, ১০ টি ওয়ান-ডে এবং ৪ টি টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিলেন। 

ভাইরাস তার স্ত্রী-র জীবন নিয়ে নিতে পারে, ওখানে তার স্ত্রী-এর মা ছাড়া আর নিজের কেউই নেই এবং তারও বয়স একাশি বছর। এই সময় দুই সন্তানকে সামলে নিজের খেয়াল রাখা তার স্ত্রী-র পক্ষে অত্যন্ত কঠিন এ কথা ও'ব্রায়েন মেনে নিচ্ছেন। তিনি ওখানে থাকলে হয়তো তার স্ত্রী-র ওপর থেকে চাপ খানিকটা কমতো, কিন্তু প্রচুর পয়সা খরচ করেও বাড়ি যাওয়ার টিকিট সংগ্রহ করতে পারছেন না তিনি।