ওয়ান ডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে কম রানে অল আউট হলো ইউএসএ। নেপালের বিরুদ্ধে ম্যাচে মাত্র ৩৫ রানে আউট হয়ে গেল ইউএসএ-র খেলোয়াড়রা। এর আগে ২০০৪ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে মাত্র ৩৫ রানে আউট হয়ে গিয়েছিল জিম্বাবোয়ে। হারারেতে তাদেন্দা তাইবু-র নেতৃত্বে এই লজ্জাজনক হারের মুখোমুখি হয়েছিল জিম্বাবোয়ে। 

মাত্র পাঁচ ওভার দুই বল খেলেই জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে ফেলেছিল নেপাল। যদিও ৩৫ রান তুলতে গিয়ে ২ উইকেট হারাতে হয় তাদের। একদিনের ক্রিকেটের ইতিহাসে তাড়াতাড়ি রান তাড়া করে জেতার ক্ষেত্রে নেপালের এই জয় রইলো তৃতীয় স্থানে।

বুধবারের এই জয়ে আসল কারিগর ছিল নেপালি স্পিনার সন্দীপ লামিছানে। দিল্লি ক্যাপিটালস-র হয়ে ভারতে আইপিএল খেলে গেছে তিনি। ইউএসএর বিরুদ্ধে নিজের কেরিয়ারের সেরা বোলিংটা করলেন তিনি। ৬ ওভার বল করে মাত্র ১৬ রান দিয়ে নিলেন ৬ উইকেট। ত্রিভুবন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে তার অসাধারণ বোলিং তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করলো ক্রিকেট অনুরাগীরা। সন্দীপের সাথে সাথে অসাধারণ বোলিং করেছেন বাঁ হাতি স্পিনার সুশান ভরি। তিনি মাত্র তিন ওভার বল করে ৫ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট। 

বুধবার মাত্র ১২ ওভার ব্যাটিং করে ইউএস। তারা ব্যাটের মাধ্যমে মাত্র ৩২ রান করতে পারে। বাকি তিন রান অতিরিক্ত। প্রথম ২ ওভারে কোনো রান না করে এক উইকেট খোয়ান ইউএসএ। সন্দীপ লামিছানের হাতে আউট হন ওপেনার ইয়ান হল্যান্ড। আর এক ওপেনার জাভিয়ার মার্শাল ইউএসএ দলের একমাত্র ব্যাটসম্যান যিনি দুই অংকের রানে পৌঁছতে পারেন। সপ্তম ওভারে ১২ রান করে সুশান ভরি-কে নিজের উইকেট দিয়ে ফেরেন মার্শাল। দলের চার জন ব্যাটসম্যান খাতাই খুলতে পারেননি। ত্রিদেশীয় সিরিজের আগের ম্যাচে ওমানের কাছেও হারতে হয় ইউএসএ কে।