ভোটের হাওয়া বইছে সারা দেশ জুড়ে। ফণীর আতঙ্ক থেকে বেরিয়ে আবার পঞ্চম দফার ভোটের জন্য় প্রস্তুতি নিচ্ছে দেশ। যত দিন যাচ্ছে কে কোন আসনে জিতবে, কেই বা ক্ষমতার আসনে জায়গা করে নেবে-এ সব নিয়ে জল্পনা তু্ঙ্গে উঠছে। যত ভোটের যবনিকা  পতনের সময় এগিয়ে আসছে ততই যেন প্রত্য়েক দলের প্রচার ঘিরেও ঘটছে নাটকীয় ঘটনা। 

৬ মে পঞ্চম দফার নিবার্চনে ৭ রাজ্য়ের ৫১ টি আসনে ভোট হবে। এই সাতটি রাজ্য়ের মধ্য়ে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, জম্মু ও কাশ্মীর, ঝাড়খণ্ড, মধ্য়প্রদেশ, রাজস্থান, উত্তরপ্রদেশ। পঞ্চম দফার ভোটে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র হল উত্তরপ্রদেশের রায় বেরেলি ও আমেঠি। 


পশ্চিমবঙ্গে ৭টি কেন্দ্রে ভোট হবে। এর মধ্য়ে রয়েছে, বনগাঁ, হাওড়া, উলুবেড়িয়া, ব্য়ারাকপুর, শ্রীরামপুর, হুগলি, ও আরামবাগ। 

এদিন বিহারে যে পাঁচটি কেন্দ্রে ভোট হবে সেগুলি হল- সীতামারি, মধুবণী, মুজফফরপুর, সরন, হাজিপুর। 

জম্মু ও কাশ্মীরেও দুটি অত্য়ন্ত গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ভোট এদিন। অনন্তনাগ ও লাদাখে ভোট চলবে এদিন। তাই কাশ্মীরে এই মুহূর্তে অতিরিক্ত নিরাপত্তা জারি করা হয়েছে। 

ঝাড়খণ্ডে ৪টি কেন্দ্রের মধ্য়ে রয়েছে টিকামগড়, দামোখ, খাজুরাহো, সাতনা, রেওয়া, হোশাংবাদ, বেতুল। 

রাজস্থানে মোট ১২টি কেন্দ্রে এদিন ভোট। কেন্দ্রগুলি হল- গঙ্গানগর, বিকানের, চুরু, ঝুনঝুনু, সিকার, গ্রামীণ জয়পুর, জয়পুর, আলওয়ার, ভারতপুর, কারাওলিঢোলপুর, দওসা এবং নাগপুর। 

উত্তরপ্রদেশে যোগী রাজ্য়ে ১৪টি কেন্দ্রের মানুষ এদিন নিজেদের রায় দেবে। এই ১৪টি কেন্দ্রের মধ্য়ে রয়েছে লখনউ, সীতাপুর, মোহনলালগঞ্জ, রায় বেরেলি, আমেঠি, বান্দা, ফতেপুর, কৌশাম্বী, বারাবাঙ্কি, ফৈজাবাদ, বাহরৈচ, কেসরগঞ্জ, গনডা, ধওরহরা। 


এই কেন্দ্রগুলির মধ্য়ে রায় বেরেলি একটি গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র। কারণ ২০১৪-য় এই কেন্দ্র জয়ী হয়েছিল কংগ্রেস। তাই এই কেন্দ্র বিজেপির মাথা ব্য়থার কারণ হয় কি না সেটা দেখার। একই পরিস্থিতি উত্তরপ্রদেশের আমেঠিতে। 

ঝাড়খণ্ডের হাজারিবাগ এই মুহূতে বিজেপির আওতায়। কিন্তু এবারের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে এই কেন্দ্র কংগ্রেস ও বামফ্রন্ট হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করবে বলে মনে করা হচ্ছে। 

রাজস্থানেক বিকানের কেন্দ্র ১৯৮০ সাল থেকে বিজেপি-কংগ্রেসের কট্টর প্রতিযোগিতা দেখে এসেছে। গত লোকসভা নির্বাচনে খুবই কম মার্জিনে জিতে যায় বিজেপি। এবারও কি এই কেন্দ্রে ভাগ্য়ের চাকা একই দিকে ঘুরবে, সেটাই দেখার। 

মধ্য়প্রদেশের সতনা কেন্দ্রে গত ২০ বছর ধরে ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি। এবারও কি একই ধারা বজায় রাখবে সতনার মানুষ। 

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে ১৪টি আসনের মধ্য়ে ১২টি আসন জয় করেছিল বিজেপি। শুধু রায় বেরেলি ও আমেঠিতেই নিজেদের জায়গা ধরে রাখতে পেরেছিল কংগ্রেস। কিন্তু ওই ১২টি আসনে এবার বিজেপির মাথা ব্য়থার কারণ হয়ে উঠেছে মায়াবতী, অখিলেশ যাদবদের এমজিবি। 

অতএব, পঞ্চম দফার ভোটে যে বিজেপির ভাগ্য় অনেকটাই নির্ধারণ করবে তা বলাই বাহুল্য। কিন্তু অন্তিম ফলাফল জানতে ২৩ মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতেই হবে।