লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ এর গণনা চলছে। এখনও  পর্যন্ত যা ফলাফল, তাতে সারা দেশে গেরুয়া ঝড় উঠেছে। আর আতস কাচ দিয়ে খুঁজলেও পাওয়া যাচ্ছে না লাল-এর চিহ্ন। পশ্চিমবঙ্গে ধুয়ে মুছে গিয়েছে বামেদের অস্তিত্ব। তাছাড়াও কেরল  বা ত্রিপুরা কোথাও এগোতে পারেনি বাম। 

বিহারের বেগুসরাই থেকে এবার বামেদের হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন কানহাইয়া কুমার। তাঁকে নিয়ে আশা দেখেছিল বাম সমর্থকরা। দেখা যাচ্ছে , সেই আসনেও এগিয়ে রয়েছেন বিজেপি প্রার্থী গিরিরাজ সিং। 

২০১৪-র লোকসভা নির্বাচনে  বামেদের জন্য ভোট পড়েছিল প্রায় ৩০ শতাংশ। সেই বার বাংলার দুটি আসনে জয়ীও হয়েছিল সিপিএম। কিন্তু সেই আসনেও দেখা মিলল না বামেদের। এখনও  পর্যন্ত যা ফলাফল, মাত্র ৭ শতাংশ ভোট পড়েছে বামেদের। 

বাংলার যাদবপুর কেন্দ্রেও জেতার স্বপ্ন দেখছিল বামেরা। আশা করা হচ্ছিল, এই আসনে জয়ী হতে পারেন বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। কিন্তু এই আসনে এগিয়ে রয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী তথা অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন বিজেপির অনুপম হাজরা। 

কিন্তু কেন এই ফারাক। ২০১৪-তেও তো এত খারাপ অবস্থা ছিল না সিপিএম-এর। নির্বাচনের সময় থেকেই শোনা যাচ্ছিল এবার বাংলায় সিপিএম-এর বেশ কিছু ভোট যাবে বিজেপির দিকে। মূলত তৃণমূলকে সরাতেই এই কৌশল নেওয়া হয়েছে বলে জল্পনা চলছিল রাজনৈতিক মহলে। তা হলে কি সত্যিই সেই জল্পনাই সত্যিই হল বাংলায়! তবে সবটা জানতে গেলে এখনও ফলাফলের শেষ বেলা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।