আড়াই মাসের তীব্র লড়াই শেষ। রাত পোহালেই ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ভোটগণনা শুরু। এই ক'টা দিন গোটা রাজ্য চড়কি-পাক খেতে হয়েছে। তার পরেও নির্বাচনে নানাভাবে ছল চাতুরির আশ্রয় নিচ্ছে বিজেপি, বলে অভিযোগ করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কাজেই অবসর মেলেনি। বৃহস্পতিবার ফল প্রকাশের পর আবার শুরু হয়ে যাবে ব্যর্থতা। এর মধ্যে বুধবার সন্ধ্যাটা একটু ফাঁকা পেয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্য়মন্ত্রী। অনেক দিন বাদে রাজনৈতিক নেত্রীর খোলসের আড়াল থেকে বের হয়ে এল তাঁর শিল্পী সত্ত্বা, শিল্পী-মনন।

নির্বাচনের খাতিরে অনেক রাজনীতির পাঁক ঘাটতে হয়েছে গত কয়েকটা দিন। নির্বাচনের তপ্ত আবহে এমনকী ভেঙে চুরমার হয়ে গিয়েছে বাঙালীর নবজাগরনের পুরোধা ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি। ফল প্রকাশের আগের সন্ধ্যায় সেই অন্ধকার দূর করে, মা মাটি মানুষের জন্য আলো প্রার্থনা করলেন তিনি। শরন নিলেন রবি ঠাকুরের।

এদিন এক ফেসবুক পোস্টে মমতা বন্দোপাধ্যায়কে সিন্থেসাইজারে রবীন্দ্রনাথের ' প্রাণ ভরিয়ে তৃষা হরিয়ে / মোরে আরো আরো আরো দাও প্রাণ' গানটির সুর বাজাতে শোনা গেল। সম্ভবত একের পর এক নির্বাচনী জনসভায় বক্তৃতা দিয়ে দিদির গলার অবস্থা এই মুহূর্তে খুব একটা ভালো নেই। তাই সুরে আর গলা মেলালেন না। কিন্তু, আঙুলের জাদুতেই রাজ্যবাসীর, দেশবাসীর মঙ্গল কামনা করলেন। পোস্টে লিখলেন, 'গণনার দিন এগিয়ে আসছে। আমি মাতৃভূমির জন্য প্রার্থনা করছি। এই গানটি মা মাটি মানুষের উদ্দেশ্যে নিবেদন করলাম।'

As counting day approaches, I pray for my motherland. This song is dedicated to Maa Mati Manush. My Facebook post >> https://t.co/1NfZtS7fIE

— Mamata Banerjee (@MamataOfficial) May 22, 2019

তবে নিন্দুকেরা বলছেন, দিদির গান-বাজনা করা আসলে ভেতরের চাপ লুকনোর চেষ্টা। বুথ ফেরত সমীক্ষা যা বলছে, তাতে রাজ্যে ক্ষমতার ভরকেন্দ্রের বড় সড় রদবর আভাস মিলেছে। আর তাতেই নাকি প্রবল স্নায়ুর চাপে ভুগছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। ৪২-এ ৪২ করস্বপ্ন তো অধরা থাকবেই, গতবারের আসন সংখ্যাও তিনি ধরে রাখতে পারবেন না বলে দাবি করছে বিজেপি।