রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করে ইস্তফা দিয়েছেন তিনি। হিসেব মতো তিনি এখন দেশের প্রধানমন্ত্রীও নন। কিন্তু আরও এক দীর্ঘ যাত্রাপথ অপেক্ষা করছে তাঁর জন্যে। তাই প্রতিবারের মতো এবারও মায়ের আশির্বাদ নিতে ছুটলেন  তিনি। 

শুক্রবার রাতেই দেশের ভাবী মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশবাসীকে জানিয়ে দিলেন তার আগামী কয়েক দিনের রুটম্যাাপ। আপাতত সবার আগে শনিবার মায়ের আশির্বাদ নিতে যাবেন তিনি।  সেখান থেকে রবিবার বারাণসী। শুধু লোকসভায় তিনশোর বেশি আসনই নয়, বারাণসী মানুষ তাঁকে দিয়েছে ৪ লক্ষের বেশি আসনে জয়। তাই তাঁদের কৃতজ্ঞতা জানাতে রবিবার সেখানে রোড শো-এর পরিকল্পনা রয়েছে নরেন্দ্র মোদীর।  তবে সবার আগে চাই অপেক্ষমান মা হীরাবেন-এর আশির্বাদ।

অতীতেও দেখা গিয়েছে যে কোনও বড় সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে মায়ের সঙ্গে মোলাকাত করেন প্রধানমন্ত্রী। নেন তাঁর পরামর্শ । নতুন মন্ত্রীসভা গঠনের ঠিক প্রাক্কালে, এবারেও সেই নিয়মের বদল হচ্ছে না।  

২৩ মে জনতার মসনদে তাঁর আসন পাকা হয়ে গিয়েছে। নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার সমস্ত কৃতিত্বই মোদী মানুষকে দিয়েছেন। আর তাঁর ব্যক্তিগত উত্থানের ইউএসপ? নিঃসন্দেহে তাঁর মা।