গোটা দেশের মতো উত্তর প্রদেশেও বিপর্যয় হয়েছে কংগ্রেসের। এমন কী, সেখানে অমেঠি আসন থেকে হেরে গিয়েছেন খোদ দলের সভাপতি রাহুল গাঁধী। হার হয়েছে দলের রাজ্য সভাপতি রাজ বব্বরেরও। এই অবস্থায় উত্তর প্রদেশে দলের খারাপ ফলের দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে পদত্যাগ করলেন রাজ্যের কংগ্রেস সভাপতি রাজ বব্বর। জানা গিয়েছে, শুক্রবারই দলের সভাপতি রাহুল গাঁধীকে পদত্যাগ পত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন রাজ বব্বর। 

উত্তর প্রদেশের আশিটি আসনের মধ্যে বিজেপি একাই ৬০টি আসন দখল করেছে। সপা-বসপার মহাজোট পেয়েছে ১৯টি আসন। আর কংগ্রেসের হয়ে একমাত্র রায়বরেলি থেকে জিতেছেন সোনিয়া গাঁধী। উত্তর প্রদেশে এ বার ভোটের আগে সপা, বসপার সঙ্গে কংগ্রেসের জোট বাঁধার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত অবশ্য সেই জোট দানা বাঁধেনি। কিন্তু সপা-বসপা জোট বাঁধলেও তা যে বিজেপি-কে আটকানোর জন্য যথেষ্ট ছিল না, ফল বেরোতেই তা স্পষ্ট। তাই সপা-বসপার সঙ্গে জোট না করার কংগ্রেসের সিদ্ধান্ত কতটা সঠিক ছিল, তা নিয়েও স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এমন কী উত্তর প্রদেশে গিয়ে জোর প্রচার করেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধীও। তার পরেও অবশ্য কাজের কাজ কিছু হয়নি। 

তবে রাজ বব্বর যাঁকে পদত্যাগ পত্র পাঠিয়েছেন, সেই রাহুল গাঁধী নিজেই সোনিয়া গাঁধীর কাছে পদত্যাগ করতে চেয়েছেন বলে খবর। সোনিয়া অবশ্য তাঁকে নিরস্ত করেছেন। আগামী সপ্তাহে কংগ্রেসের ওয়ার্কিং বৈঠকে ফের একবার পদত্যাগের কথা তুলতে পারেন রাহুল। তবে রাজ বব্বরের পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করা হবে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়।