অমিত শাহ-এর রোড শো ঘিরে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষের ঘটনায় ইতিমধ্য়েই শতাধিক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজেশ কুমার। তবে তিনি কেনও বয়ান দেওয়ার আগেই বিজেপির তরফে ফেক বয়ান প্রকাশ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্য়ায়।

এদিন বিদ্যাসাগর কলেজে ভাঙচুরের ঘটনার কিছু সময় পরই ঘটনাস্থলে এসে হাজির হন পুলিশ কমিশনার। তার কিছুক্ষণ পর আসেন মুখ্যমন্ত্রীও। রাজেশ কুমারের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন তিনি। তারপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তৃণমূল নেত্রী অভিযোগ করেন, এখনও পর্যন্ত কলকাতা পুলিশের তরফে ঘটনা সম্পর্কে কিছু না জানানো হলেও, ইতিমধ্য়েই বিজেপির পক্ষ থেকে পুলিশ কমিশনারের নাম করে একটি 'ফেক' অর্থাৎ ভূয়ো বয়ান সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে যেখানে ঘটনার পিছনে সম্পূর্ণভাবে টিএমসিকে দায়ী করা হয়েছে।  

মমতা জানান, কলকাতা শহরের বুকে অনেক মিছিল করেছে তৃণমূল। কলেজ স্ট্রিট এলাকাতেও অনেক মিছিলে হেঁটেছেন তাঁরা। কিন্তু কোনও দিন কলেজ বা মূর্তি ভাঙচুরের না ঘটেনি। এটা তৃণমূলের সংস্কৃতি নয়।

সিপি রাজেশ কুমার জানান বিদ্যাসাগর শুধু রাজ্যেরই নয়, সারা দেশের এক বরেণ্য ব্যক্তি। তাঁর মূর্তি যারা ভেঙেছে তাদের কোনওভাবেই রেয়াত করা হবে না। আটক ব্যক্তিদের ঘটায় কার কী ভূমিকা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ঘটনায় জড়িত সকলকে গ্রেফতার করে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন রাজেশ কুমার।

সেই সঙ্গে তাঁর পক্ষ থেকে ঘটনা সম্পর্কে কোনও বয়ান এখনও দেওয়া হয়নি বলেও নিশ্চিত করেন তিনি। তদন্ত শেষ না হলে তারপরেই তিনি যা বলার বলবেন।