প্রতিটি রাজনৈতিক দলকে জানাতে হবে তারা কোথা থেকে কত টাকা অনুদান পেয়েছে। নির্বাচনের আবহে কালো টাকার রমরমা রুখতে কেন্দ্রীয় সরকার একটি নির্বাচনী বন্ড চালু করেছিল। কোনও রাজনৈতিক দলকে টাকা দিতে হলেও এই বন্ডের মাধ্যমেই দিতে হবে।

 

কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের চালু করা এই বন্ডে ক্রেতার পরিচয় না থাকলে কালো টাকার ব্যবহার রোখা যাবে না বলে জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। সেই জন্যই প্রতিটি রাজনৈতিক দলকে নির্বাচনী বন্ডের মাধ্যমে যাবতীয় ও বিস্তারিত তথ্য দিতে হবে। শুক্রবার এই ঘোষণা করে সুপ্রিম কোর্ট। ১৫ মে পর্যন্ত রাজনৈতিক দলগুলি যা যা অনুদান পেয়েছে,তার যাবতীয় হিসেব ৩১ মে-র মধ্যে দিতে হবে।

 

নির্বাচনী বন্ডের মাধ্যমে পাওয়া সব তথ্য রাজনৈতিক দলগুলিকে একটি খামে ভরে নির্বাচন কমিশনের কাছে জমা দিতে হবে। সেই তথ্য়ে কে টাকা দিয়েছে, এবং কত টাকা দিয়েছে তা বিস্তারিত থাকতে হবে। জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা জানান, নির্বাচন ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আনার জন্যই এই ব্যবস্থা।

 

প্রসঙ্গত, এই বন্ড তৈরি হওয়ার পরে স্টেট ব্যাঙ্ক থেকে বন্ড কিনতেন দাতারা। সেই বন্ডের মাধ্য়মেই টাকা দিতেন দাতারা। কিন্তু সিপিআইএম ও অ্যাসোসিয়েশন অফ ডেমোক্রেটিক রাইটস নামে এক সংগঠন এই বন্ডের বিরোধীতা করে। এদের দাবি ছিল, এই বন্ড বন্ধ করতে হবে। না হলে অনুদানকারী সম্পর্কে বিশদে জানাতে হবে। বিস্তারিত তথ্য না জানা গেলে কালো টাকার ব্যবহার রোখা যাবে না। এই আবেদনের উপরেই শুনানি হয় বৃহস্পতিবার। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর নেতৃত্বে বিস্তারিত তথ্য় প্রকাশের নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।