ভোটের ফল বেরনোর আগেই বিস্ফোরণ ঘটালেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী এবং কোচবিহারে তৃণমূলের জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। ফেসবুকে পোস্ট করে তাঁর হুশিয়ারি, "গদ্দারদের চিহ্নিত করা হয়েছে, দল থেকে তাড়াতে হবে।"

গোটা লোকসভা নির্বাচন জুড়েই তৃণমূলের মধ্যেই অন্যতম আলোচনার বিষয় ছিল দলের মধ্যে কারা বিজেপি-র সঙ্গে যোগাযোগা রাখছে? রাজ্যে প্রচারে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তৃণমূল বিধায়কদের সঙ্গে তাঁর যোগাযোগের কথা বলায় সেই জল্পনা আরও গতি পায়। আর এক্সিট পোলে রাজ্যে বিজেপি-র ভাল ফলে পূর্বাভাসের পর ইতমধ্যেই তৃণমূলের দুই সাংসদদের বিজেপি নেতার সঙ্গে যোগাযোগের মতো খবর হাওয়ায় ভাসছে। 

এই অবস্থায় রবীন্দ্রনাথ ঘোষের এই দাবি যথেষ্টই তাৎপর্যপূর্ণ। তবে মন্ত্রী এই বক্তব্য তাঁর নিজের জেলা কোচবিহারের প্রসঙ্গে বলেছেন, নাকি সামগ্রিকভাবে গোটা দলের কথা বোঝাতে চাইছেন, তা স্পষ্ট নয়। ফেসবুক পোস্টে রবীন্দ্রনাথ লিখেছেন, " দলের ভিতরে যারা গদ্দার, দলকে পিছন থেকে ছুরি মারছে, তাদের নাম চিহ্নিত করা হয়েছে। এই গদ্দারদের দল থেকে তাড়াতে হবে।"

 

 

প্রসঙ্গত কোচবিহার কেন্দ্রটি এবার ধরে রাখাই তৃণমূলের কাছে বড় চ্যালে়্জ। কারণ তৃণমূলের বহিষ্কৃত যুব নেতা নিশীথ প্রামাণিকই এবার ওই আসন থেকে বিজেপি-র টিকিটে লড়ছেন। ভোট জয়ের বিষয়েও তিনি এগিয়ে রয়েছেন বলে বেশ কয়েকটি এক্সিট পোলে দাবি করা হয়েছে। রবীন্দ্রনাথ ঘোষের অবশ্য দাবি, বিজেপি নয়, কোচবিহার কেন্দ্রে তাঁরাই জিতবেন। কিন্তু দলের মধ্যে যে এখনও অনেকেই বিজেপি-র সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে, রবীন্দ্রনাথের ফেসবুক পোস্টেই তা স্পষ্ট।