ভোটের ফলের প্রকাশের উত্তেজনা তো থাকবেই, তার সঙ্গে থাকবে প্রবল গরমও। কড়া রোদে ঘেমে নেয়ে একসা হয়েই ভোটের ফলের টেনশন সইতে হবে রাজনৈতিক দলের প্রার্থী থেকে কর্মীদের। আমজনতাও টেনশনে থাকবে, কিন্তু তাদের কাছে এই টেনশন অনেকটা ফাইনাল ম্যাচের ফল বেরনোর মতো। কিন্তু তাঁরাও যে একটু স্বস্তিতে এই হাইভোল্টেজ ম্যাচের চূড়ান্ত ফলটা উপভোগ করবেন, সে আশা নেই বলেই জানিয়ে দিচ্ছে আবহাওয়া দফতর।

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস বলছে, আজ বুধবার সারাদিনও কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের সর্বত্রই তাপমাত্রা থাকবে ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। তার চরমে থাকবে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি। বৃহস্পতিবারও এই আবহাওয়ায় পরিবর্তনের কোনও পূর্বাভাস এখনও নেই। ফলে, প্রবল গরমের মধ্যেই সুষ্ঠুভাবে ভোট গণনার সম্পন্ন করার চ্যালেঞ্জও নিতে হবে ভোটকর্মী এবং রাজনৈতিক দলের কর্মীদের। তবে একটাই সুখবর দিয়েছেন আবহবিদরা, সন্ধের দিকে গাঙ্গের পশ্চিমবঙ্গের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু দিনের বেলা প্রবল অস্বস্তি থাকবে বলেই সতর্ক করেছেন হাওয়া অফিসের কর্তারা। 

ভোট গণনা মানেই সকাল থেকে গণনা কেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষায় থাকেন হাজার হাজার রাজনৈতিক দলের সমর্থক। প্রবল গরমের মধ্যেই কাঙ্খিত ফলের জন্য তাঁদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। নিজের দলের প্রার্থীর বহু প্রতীক্ষিত জয় এলে হয়তো গরমের কষ্ট অনেকটাই লাঘব হবে। কিন্তু উল্টোটা হলে হারের ধাক্কার সঙ্গে গরমের দাপট, দুইয়ে সম্মিলিত প্রভাবে যথেষ্ট কাহিল অবস্থা হবে পরাজিত শিবিরের কর্মী-সমর্থকদের!