গত বছরের শেষ দিকেই সাত পাকে বাধা পড়েছিলেন মুকেশ অম্বানীর কন্যা ঈশা অম্বানী। প্রায় এক সপ্তাহ ধরে আম্বানির বাসভবন অ্যান্তেলিয়ায় বসেছিল বিয়ের আসর। রীতিমতো রাজকীয় কায়দায় আনন্দ পিরামলের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন ঈশা অম্বানী। সেই রাজকীয় বিয়ে নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে কম চর্চা হয়নি। 

বিয়ের সময়ে উপহার হিসাবে আনন্দ পিরামলের বাবা-মা নবদম্পতিকে উপহার দিয়েছিলেন প্রায় ৪৫২ কোটি টাকা দামের একটি বাংলো। মুম্বই-এর ওরলিতে সমুদ্র লাগোয়া এই বাংলোটি ছিল হিন্দুস্থান ইউনিলিভার গোষ্ঠীর মালিকানাধীন। ২০১২ সালে সেটি ৪৫২ কোটি টাকা দিয়ে কিনে নেন পিরামল গোষ্ঠী।  ৫০ হাজার বর্গফুট জায়গা জুড়ে বিস্তৃত ৫টি ফ্লোর বিশিষ্ট এই বাংলোটি নির্মাণ করেছে প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক।মাটির নিচেও রয়েছে তিনটি’টি তলা, যেখানে রয়েছে গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থা, যেখানে তাঁরা তাঁদের ২০টি বিলাসবহুল গাড়ি রাখতে পারবেন। বাড়ির ভেতরে মেঝেতে লাগানো হয়েছে সাদা মার্বেল। গোটা ম্যানসনটি নির্মাণ করা হয়েছে থ্রি-ডি কনস্ট্রাকশন টেকনোলজি ব্যবহার করে। 

 

বাংলোর প্রথম ফ্লোরে রয়েছে এন্ট্রান্স লবি। তার উপরের ফ্লোরে রয়েছে লিভিং রুম ও ডাইনিং রুম। তিন তলায় রয়েছে আরও একটি হলঘর, বেডরুম ও সার্কুলার স্টাডি রুম। সেই বাংলোয় কর্মচারীদের জন্যও রয়েছে একাধিক ঘর। বেসমেন্টে রয়েছে সুন্দর বাগান। গার্ডেন চত্ত্বরে রয়েছে সুইমিং পুলও। ঝাঁ-চকচকে সেই বাংলোর অন্দরমহল এবং বাহ্যিক ছবি সম্প্রতি  ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায়। ম্যানসনের অপরূপ সৌন্দর্যে মজেছে নেট দুনিয়া।