জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিয়ে গণপিটুনি ও হত্যার ঘটনা বার বার উঠে আসছে। নিশানায় থাকছে দলিত ও মুসলিমরা। কিন্তু এত কিছুর পরেও প্রধানমন্ত্রী মুখে কুলু এঁটে রয়েছেন। তিনি যাতে এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করেন সেই আবেদনে দেশের ৪৯ জন বিশিষ্টজন একত্র হয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি পাঠিয়েছেন। কিন্তু এই ৪৯ জন বিশিষ্টজনের বিরুদ্ধেই মামলা দায়ের করলেন বিহারের একজন আইনজীবী। 

শনিবার বিহার আদালতে এই বিশিষ্টজনদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহীতার অভিযোগ এনে এই মামলা দায়ের করেন আইনজীবী সুধীর কুমাপ ওঝ। দেশদ্রোহীতা ছাড়াও ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত, দেশের ভাবমূর্তি ও একতা নষ্ট করার মতো অভিযোগেও তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন সেই আইনজীবী। এমনকী, তাঁর দাবি এই ৪৯ জন বিশিষ্টজন নাকি মোদীর উন্নয়নের কাজেও ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে। 

আরও পড়ুনঃ জোর করে 'জয় শ্রীরাম' বলালে বলব না! মোদীকে চিঠি পাঠিয়ে বললেন অপর্ণা

তবে এখানেই শেষ নয়। এই আইনজীবীর করা পিটিশমে সাক্ষী হিসেবে সই করেছেন বিবেক অগ্নিহোত্রী, কঙ্গনা রানাউত-সহ মোট ৬১ জন। অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, অঞ্জন দত্ত, অনুরাগ কাশ্যপ, শ্যাম বেনেগাল-সহ ৪৯ জন মোদীকে খোলা চিঠি দেওয়ার পরেই পাল্টা চিটি দেন ৬১ জন। এই ৬১ জনের মধ্য়ে রয়েছেন কঙ্গনা রানাউত, মধুর  ভান্ডারকর, পার্নো মিত্র সহ আরও অনেকে। এঁদের দাবি ৪৯ জন বিশিষ্টজন বেছে বেছে কয়েকটি ঘটনা নিয়েই মুখ খোলেন। যদিও সংবাদমাধ্যমের কাছে অপর্ণা সেন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, যে কোনও ধরনের ঘটনাতেই তাঁরা সরব হয়েছেন। এতে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই। কিন্তু ধর্মের নামে হিন্দু মুসলিম নির্বিশেষে কোনও মানুষেরউপরেই অত্যাচার বাঞ্ছনীয় নয়।