বেশ কয়েকদিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছেন কিংবদন্তি ফুটবলার প্রদীপ কুমার বন্দ্যোপাধ্যায়। ইএম বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। বৃহস্পতিবার তাঁর শরীর স্বাস্থ্যের খবর নিলেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর। শুক্রবারই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-এর সঙ্গে বৈঠকের কথা তাঁর। তার আগের দিনই ভোকাল টনিক কোচ-এর স্বাস্থ্যের খবরাখবর নেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান।

বৃহস্পতিবার রাতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর টুইট করে জানান, 'মেডিকা হাসপাতালে কিংবদন্তি ফুটবলার পি কে বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্য সম্পর্কে খোঁজ খবর নিলাম। চিকিৎসকরা তাঁর দিকে সম্পূর্ণ মনোযোগ দিচ্ছেন'। রাজ্যপাল আরও জানান, তাঁর সঙ্গে পিকে বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখতে গিয়েছিলেন তাঁর স্ত্রী সুদেশ ধনখর-ও। তাঁদের সঙ্গে পিকে-র দুই কন্যারও কথা হয়। জগদীপ ধলখর আরও জানান, ১৯৯০-এর সময় তিনি যখন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ছিলেন, তখন পিকে-ই ছিলেন ভারতের সবচেয়ে স্বীকৃত ফুটবলার। ভোকাল টনিক কোচ যে অর্জুন পুরষ্কার ও পদ্মশ্রীর মতো সম্মান পেয়েছেন তাও উল্লেখ করেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান।

বৃহস্পতিবার ইএম বাইপাসের ওই বেসরকারি হাসপাতালের তরফে যে মেডিক্যাল বুলেটিন প্রকাশ করা হয়, তাতে বলা হয়, পি কে বন্দ্যোপাধ্যায়য়ের অবস্থা এখন অনেকটাই স্থিতিশীল। আগের চেয়ে অনেকটাই সুস্থ তিনি। চিকিৎসায় ভালোই সাড়া দিচ্ছেন ভারতীয় ফুটবলের এই কিংবদন্তি ব্যক্তিত্ব। তবে সঙ্কট একেবারে কেটে গিয়েছে এমনটা ডাক্তাররা এখনও বলছেন না।

তিন বছর আগেই বয়স ৮০ পেরিয়েছে। শ্বাসকষ্টের সমস্যা তাঁর বহুদিনের। এবার তার সঙ্গে ছিল নিউমোনিয়া সংক্রমণ। রয়েছে হৃদরোগের সমস্যাও। গত ২ মার্চ তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছিল। প্রথমে ভেন্টিলেশনে ছিলেন, পরে আইসিইউ-তে স্থানান্তর করা হয়।