ইতিমধ্যেই অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে লা লিগার ক্লাবগুলি। অনুশীলনে গা ঘামিয়েছেন মেসি, সুরেজ, গ্রিজম্যান, গ্যারেথ বেলরা। প্রথমিকভাবে কোনও চূড়ান্ত তারিখ ঘোষণা না করলেও জুন থেকে লা লিগা শুরু করার পরিকল্পনা ছিল কর্তৃপক্ষের। কিন্তু তারপরই আসে দুঃসংবাদ। ৩ জন সাপোর্টিং স্টাফ ও ৫ জন ফুটবলার সহ মোট ৮ জন আক্রান্ত হন করোনা ভাইরাসে। তারপরই প্রশ্ন ওঠে জুন মাস থেকে আদৌ শুরু করা সম্ভব কিনা লিগ। কিন্তু নিজেদের জেদে অনড় লা লিগা কর্তৃপক্ষ। প্রাথমিকভাবে শোনা যাচ্ছিল ২০ জুন থেকে শুরু হতে পারে লা লিগা। এবার তা আরও এগিয়ে আসছে বলে জানা গিয়েছে। এক সপ্তাহ এগিয়ে তা ১২ জুন শুরু হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। তাঁদের যুক্তি, স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া সবুজ সঙ্কেতের ফলেই এমনটা সম্ভব হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃফিরছে জার্মান পাওয়ার ফুটবল, জেনে নিন ২০১৯-২০ মরসুমে বুন্দেসলিগার প্রথম ৫ গোলদাতাদের পরিসংখ্যান

লা লিগা সভাপতি হাভিয়ের তেবাস বলেন, বুন্দেসলিগায় টেস্টের পর যেভাবে ফুটবলারদের আক্রান্ত হওয়ার তালিকা পাওয়া গিয়েছিলো, তা'তে আমরা ভেবেছিলাম এখানেও এমনটাই হবে। কিন্তু আমাদের অবস্থা বেশ আশাব্যঞ্জক। আড়াই হাজার ফুটবলারের টেস্ট করিয়ে মাত্র ৮ জন আক্রান্ত পাওয়া গিয়েছে। তাদের মধ্যে ৫ জন ফুটবলার আর তিনজন কোচিং স্টাফ। তাদেরকে আমরা আইসোলেশনে পাঠিয়ে দিয়েছি। এটা ভীতিজনক কিছু নয়।আক্রান্তদের বিষয়ে সিদ্ধান্তের পাশাপাশি সাক্ষাৎকারে লিগ শুরুর তারিখ নিয়েও আভাস দিয়েছেন তেবাস। আগামী মাসেই ফুটবল মাঠে ফিরিয়ে আনতে চান তিনি। তিনি আরও বলেন, আগামী ১২ জুন থেকে আমরা লিগ শুরু করতে চাই। সেভাবেই ক্লাবগুলোকে প্রস্তুত হতে বলেছি। তবে, সবকিছু হবে স্বাস্থ্য-বিভাগের নিয়মকানুন মেনে। খেলোয়াড়দের বিষয়ে কোনপ্রকার ঝুঁকি নেয়া হবে না।

আরও পড়ুনঃপয়লা জুন থেকে ফিরতে পারে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ,ইঙ্গিত ইংল্যান্ড সরকারের

আরও পড়ুনঃদরকার আর ৬ পয়েন্ট, ইতিহাস সৃষ্টির অপেক্ষায় লিভারপুল

লিগ শুরু করলেও, বেশ কিছু নতুন নিয়ম কানুনের সঙ্গে পরিচিত হতে হবে লা লিগা'কে। তবে, কোন কিছুই চূড়ান্ত নয় বলে জানিয়েছেন হাভিয়ের। বলেন, আমরা কিছু নতুন নিয়ম করার কথা ভাবছি। তবে কোন কিছুই চূড়ান্ত নয়। নতুন ফিক্সচারে চেষ্টা করা হবে সপ্তাহে প্রতিদিন খেলা রাখতে। মাঠে থুতু ফেললে হলুদ কার্ড দেখানো হবে খেলোয়াড়কে। মাঠে প্রবেশের আগে সবার তাপমাত্রা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হতে পারে। অ্যাওয়ে ম্যাচে মাঠে যাওয়ার সময় পুরো স্কোয়াডকে ২ বাসে করে যাওয়া-আসা করতে পরামর্শ দেওয়া হবে। বিরতির সময় নতুন জার্সিও পড়তে বলবো তাদের। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, এখনও দু’বার মেসিদের করোনা টেস্ট করানো হবে। এই সপ্তাহে একবার টেস্ট করানো হবে, আবার লিগ শুরু হওয়ার ঠিক এক দিন আগে করোনা পরীক্ষা করা হবে। সেক্ষেত্রে কোনও সমস্যা না থাকলেই চলবে খেলা। এখন দেখার, বাধা বিপত্তি কাটিয়ে মেসিরা আদৌ ১২ জুন থেকে মাঠে নামতে পারে কিনা।