মোহনবাগান সমর্থকদের কাছে তিনি গত মরশুমে ছিলেন নয়নের মনি। সবুজ-মেরুন ব্রিগেডকে গত বার আই লিগ চ্যাম্পিয়ন করার পিছনে তাঁর অবদান কম নয়। সেই ফ্রান গঞ্জালেজই এইবার সবুজ মেরুণে উপেক্ষিত। ক্লাবের সঙ্গে আরও একবছরের চুক্তি এখনও রয়েছে তাঁর। কিন্তু ফ্রানের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছেন ক্লাবের কর্তারা। তাঁদের ব্যবহারে খুশি হতে পারেননি ফ্রান। গোটা ঘটনাটি তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন। 

ফ্রান গঞ্জালেজের সাথে গত মরশুমের শুরুতে দুই বছরের চুক্তি করেছিল মোহনবাগান। চুক্তির এক বছর পূর্ণ হয়েছে। রয়েছে আরও এক বছর। এদিকে এটিকে ও মোহনবাগানের মিলে গিয়ে যে এটিকে-মোহনবাগান তৈরি হয় এবং আই লিগের পরিবর্তে এইবার যে আইএসএল খেলবে এটিকে-মোহনবাগান, তা ফ্রানকে জানানোর প্রয়োজন বোধ করেননি ক্লাব কর্তারা। এটিকে-মোহনবাগানে আট জন বিদেশি ফুটবলার অনেক আগে থেকেই চূড়ান্ত। কিন্তু চুক্তি থাকলেও মোহনবাগানের ৫০ নম্বর জার্সিধারী গঞ্জালেজের সঙ্গে কন্ট্রাক্ট টার্মিনেট করা নিয়ে কোনও কথাবার্তা বলছেন না কর্তারা, এমনকি তার আইনজীবীর চিঠিকেও অগ্রাহ্য করেছেন তারা।

আর তাতেই বেজায় অপ্রসন্ন ফ্রান। সোশ্যাল মিডিয়ায় বুধবার তিনি লিখেছেন, ক্লাবের কাছ থেকে তিনি এখনও কোনও খবর পাননি নতুন মরসুমের অনুশীলন শুরু হবে কবে, সে ব্যাপারেও। তার আইনজীবীর বার্তার উপেক্ষা করেছে ক্লাব। গত মরসুমে ক্লাবের লিগ জয়ে তার অবদান কিকরে ভুলে গেল সকলে, তাতেই তিনি আশ্চর্য। তার পরেই প্রিয় মোহনবাগানী সমর্থকদের কাছে তিনি প্রশ্ন রেখেছেন যে তাঁরাও কি তাকে ভুলে গিয়েছেন? পরে একটি সংবাদমাধ্যমের তরফ থেকে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন এটিকে-মোহনবাগানে যদি তিনি সুযোগ না পান সেক্ষেত্রে তাকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।