সিঙ্গল মাদার স্বস্তিকা! মেয়ে অন্বেষার সঙ্গে কেমন সময় কাটান, দেখুন ছবিতে ছবিতে

First Published 14, Jul 2019, 5:46 PM IST

সিঙ্গল মাদার হওয়া কিন্তু খুব সহজ নয়। মা বাবা দুজনের দায়িত্বই পালন করতে হয় একজনকে। কিন্তু এই সিঙ্গল মাদারের দায়িত্ব পালনে সফলে স্বস্তিকা মুখোপাধ্য়ায়। অভিনয়, শ্যুটিংয়ের পাশাপাশি কী ভাবে মেয়েকে সময় দিতে হয় তা ভালোই জানেন স্বস্তিকা। দেখে নেওয়া যাক মেয়ে অন্বেষার সঙ্গে কেমন সময় কাটে স্বস্তিকার। 

সম্পর্কে মা-মেয়ে হলেও অন্বেষার সঙ্গে স্বস্তিকার সম্পর্ক বেস্টফ্রেন্ডের মতো।

সম্পর্কে মা-মেয়ে হলেও অন্বেষার সঙ্গে স্বস্তিকার সম্পর্ক বেস্টফ্রেন্ডের মতো।

স্বস্তিকা ব্য়স্ত শিডিউলের মধ্যেও ঠিক বেড়াতে যান, আর তাঁর সব সময়ের সফরসঙ্গী হলেন মেয়ে অন্বেষা

স্বস্তিকা ব্য়স্ত শিডিউলের মধ্যেও ঠিক বেড়াতে যান, আর তাঁর সব সময়ের সফরসঙ্গী হলেন মেয়ে অন্বেষা

স্বস্তিকার একমাত্র মেয়ে অন্বেষা। তাই অন্বেষা যে তাঁর  আদরের মেয়ে তা বলাই বাহুল্য। মেয়েকে ছাড়া এক মুহূর্ত যেন ভালো কাটে না স্বস্তিকার।

স্বস্তিকার একমাত্র মেয়ে অন্বেষা। তাই অন্বেষা যে তাঁর আদরের মেয়ে তা বলাই বাহুল্য। মেয়েকে ছাড়া এক মুহূর্ত যেন ভালো কাটে না স্বস্তিকার।

মা মেয়ে য়ে পরস্পরের ভালো বন্ধু তা তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়াতে নজর রাখলেই বোঝা যায়। প্রায়ই একসঙ্গে বেড়াতে বেরোন দুজনে ।

মা মেয়ে য়ে পরস্পরের ভালো বন্ধু তা তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়াতে নজর রাখলেই বোঝা যায়। প্রায়ই একসঙ্গে বেড়াতে বেরোন দুজনে ।

কখনও পাহাড়, কখনও সমুদ্র সৈকত থেকে বেড়িয়ে আসেন দুজনে। অন্বেষাও মায়ের মতোই  ফ্যাশনিস্তা।

কখনও পাহাড়, কখনও সমুদ্র সৈকত থেকে বেড়িয়ে আসেন দুজনে। অন্বেষাও মায়ের মতোই ফ্যাশনিস্তা।

একেই বলে যেমন মা, তেমনই মেয়ে। শাড়িতে দুজনই মানানসই। দুজনের শাড়ির রঙেও মিলান্তি।

একেই বলে যেমন মা, তেমনই মেয়ে। শাড়িতে দুজনই মানানসই। দুজনের শাড়ির রঙেও মিলান্তি।

এই মিষ্টি ছবিটি বেশ কয়েক বছর আগেকার। তখন অন্বেষা আরো ছোট। মেয়ে হল স্বস্তিকার চোখের মণি।

এই মিষ্টি ছবিটি বেশ কয়েক বছর আগেকার। তখন অন্বেষা আরো ছোট। মেয়ে হল স্বস্তিকার চোখের মণি।

একসঙ্গে বহু রেস্তোরাঁ, বহু পাবে যান স্বস্তিকা ও অন্বেষা। দুজনের পরস্পরকে ছাড়া এক মুহূর্ত চলে না বললে ভুল হবে না।

একসঙ্গে বহু রেস্তোরাঁ, বহু পাবে যান স্বস্তিকা ও অন্বেষা। দুজনের পরস্পরকে ছাড়া এক মুহূর্ত চলে না বললে ভুল হবে না।

loader