সিঙ্গাপুরে সিঁদুরখেলায় মাতলেন ঋতুপর্ণা, প্রবাসে থেকেই পাঠালেন শুভেচ্ছা

First Published 26, Oct 2020, 6:56 PM

বিজয়া দশমীতে মেতে উঠেছে মহানগর। আর তারই সঙ্গে মনখারাপের পালা। আবার অন্যদিকে পরের বছরের জন্য অপেক্ষা। করোনা আবহে বন্ধুদের যদিও এবছর আলিঙ্গন করার সাহস কেউ খুব একটা করবে না। তবুও বাঙালির বড়দের প্রণাম না করলেও প্রাণ ভরবে না। তবে যার কলকাতার থেকে অনেক দূরে,তারাও নিজের মতোই করে পুজো উপভোগ করেছেন। চুটিয়ে খেলেছেন সিঁদুর খেলাও সুদূর সিঙ্গাপুর থেকে স্বয়ং ঋতুপর্ণা।

<p>&nbsp;যারা কলকাতার থেকে অনেক দূরে,তারাও নিজের মতোই করে পুজো উপভোগ করেছেন। চুটিয়ে খেলেছেন সিঁদুর খেলাও সুদূর সিঙ্গাপুর থেকে স্বয়ং ঋতুপর্ণা।</p>

 যারা কলকাতার থেকে অনেক দূরে,তারাও নিজের মতোই করে পুজো উপভোগ করেছেন। চুটিয়ে খেলেছেন সিঁদুর খেলাও সুদূর সিঙ্গাপুর থেকে স্বয়ং ঋতুপর্ণা।

<p>করোনা আবহে বন্ধুদের যদিও এবছর আলিঙ্গন করার সাহস কেউ খুব একটা করবে না। তবুও বাঙালির বড়দের প্রণাম না করলেও&nbsp;প্রাণ ভরবে না। তাই নিজের মতো করেই দশমীর সিদুর খেলায় মাতলেন ঋতু।</p>

করোনা আবহে বন্ধুদের যদিও এবছর আলিঙ্গন করার সাহস কেউ খুব একটা করবে না। তবুও বাঙালির বড়দের প্রণাম না করলেও প্রাণ ভরবে না। তাই নিজের মতো করেই দশমীর সিদুর খেলায় মাতলেন ঋতু।

<p>বিজয়া দশমীতে মেতে উঠেছে মহানগর। আর তারই সঙ্গে মনখারাপের পালা। আবার অন্যদিকে পরের বছরের জন্য অপেক্ষা। তবে কম যায় সুদূর সিঙ্গাপুরও। কারণ সেখানে যে থাকেন বাংলার সেরা অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা। সাদা-লাল শাড়িতে -ডিজাইন করা মাস্কে কোভিড মেনেও একদিকে যেমন চলছেন, অপরদিকে আছে তেমেই সংষ্কৃতির টান।</p>

বিজয়া দশমীতে মেতে উঠেছে মহানগর। আর তারই সঙ্গে মনখারাপের পালা। আবার অন্যদিকে পরের বছরের জন্য অপেক্ষা। তবে কম যায় সুদূর সিঙ্গাপুরও। কারণ সেখানে যে থাকেন বাংলার সেরা অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা। সাদা-লাল শাড়িতে -ডিজাইন করা মাস্কে কোভিড মেনেও একদিকে যেমন চলছেন, অপরদিকে আছে তেমেই সংষ্কৃতির টান।

<p>লকডাউনে কলকাতা নয় সিঙ্গাপুরে পরিবারের সঙ্গে দিন কাটছে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর। সারাবছরই শুটিংয়ে ব্যস্ত&nbsp;&nbsp;থাকেন ঋতুপর্ণা। তাই বাড়িতে তেমন সময় দিতে পারেননা বললেই চলে।&nbsp;তবে দীর্ঘ দিন পরে এই লকডাউন যেন তাঁকে পরিবারের অনেকটা কাছাকাছি এনে দিয়েছে।&nbsp;</p>

লকডাউনে কলকাতা নয় সিঙ্গাপুরে পরিবারের সঙ্গে দিন কাটছে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর। সারাবছরই শুটিংয়ে ব্যস্ত  থাকেন ঋতুপর্ণা। তাই বাড়িতে তেমন সময় দিতে পারেননা বললেই চলে। তবে দীর্ঘ দিন পরে এই লকডাউন যেন তাঁকে পরিবারের অনেকটা কাছাকাছি এনে দিয়েছে। 

<p>তবে লক ডাউনেও শুটিংয়ের কাজ যেন একরকম থমকে গিয়েছে। এখন তাই ঘরে বসেই চলছে তার কাজ অনলাইনে। তাই চূড়ান্ত ব্য়স্ততার মধ্যেও দশমীতে মন ভরে মাতলেন&nbsp;সিঁদূর খেলায় ঋতুপর্ণা।</p>

তবে লক ডাউনেও শুটিংয়ের কাজ যেন একরকম থমকে গিয়েছে। এখন তাই ঘরে বসেই চলছে তার কাজ অনলাইনে। তাই চূড়ান্ত ব্য়স্ততার মধ্যেও দশমীতে মন ভরে মাতলেন সিঁদূর খেলায় ঋতুপর্ণা।

<p>একসঙ্গে দুয়ারে বসে হাতে হাতে রেখে ছবি তুললেন বাঙালির প্রিয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা।</p>

একসঙ্গে দুয়ারে বসে হাতে হাতে রেখে ছবি তুললেন বাঙালির প্রিয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা।