18


রূপকথার বিয়ে থেকে বিচ্ছেদ নিখিল- নুসরতের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে চর্চা সর্বদাই তুঙ্গে। বিয়ের  ২ বছর পূর্ণ হতেই আর বাকি ছিল বেশ কয়েকদিন বাকি।  তবে গত ডিসেম্বর মাস থেকেই আলাদা রয়েছেন নিখিল-নুসরত। শেষবারের মতো সুরুচি সংঘের পুজোর অষ্টমীর অঞ্জলি দিতে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল এই মিঁয়া-বিবিকে। ২০২০-র শেষ থেকেই একসঙ্গে থাকছেন না নিখিল-নুসরত। চলতি বছরের নভেম্বর মাসে অ্যানালমেন্ট অব ম্যারেজের মাধ্যমেই নুসরতের থেকে পুরোপুরি আলাদা হয়ে গেছেন নিখিল। নিখিল বিতর্ক এখন অতীত। বর্তমানে স্বামী-সন্তানকে নিয়ে ভরা সংসার নুসরতের। এবং একজন বাবা হিসেবে যশকে পেয়ে ঈশান কতটা ভাগ্যবান তাও জানিয়েছেন নুসরত। বাবা হিসেবে দশের মধ্যে এগারো দিয়েছেন যশকে।

Subscribe to get breaking news alerts

28

মিউজিকের সূত্র ধরেই বন্ধুত্ব এবং সেখান থেকেই সম্পর্কের শুরু। তারপর পরবর্তীতে প্রেম এবং পথচলা শুরু হয় দুজনের। মিউজিক, গান এটাই যেন দুজনের সংসার। এই মিউজিকের প্রতি ভালবাসাই কাছাকাছি এনে দিয়েছিল অনুপম ও পিয়াকে।  ২০১৫ সালে সাতপাকে বাঁধা পড়েছিলেন অনুপম রায় ও পিয়া। দিব্যি চলছিল সুখের সংসার। তারপর হঠাৎই ছন্দপতন। আচমকাই ডিভোর্সের ঘোষণা করে মুহূর্তের মধ্যে সকলকে অবাক করে দিয়েছেন এই চর্চিত জুটি। দীর্ঘ ৬ বছরের দাম্পত্যে চলতি বছরেই ইতি টেনেছেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী অনুপম রায়। আনুষ্ঠানিক বার্তার মাধ্যমেই বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা করেছেন টলিপাড়ার এই দম্পতি।  খবর প্রকাশ্যে আসতেই অনুপম ভক্তরা ভেঙে পড়েছেন। তবে কেন বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিলেন অনুপম ও পিয়া, এর কোনও কারণ জানা যায়নি। 

38

ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত এবং বরখা বিশতে প্রেমকাহিনি সর্বদাই শিরোনামে থেকেছে। কিন্তু চলতি বছরেই আচমকা ছন্দপতন। একে অপরের ছবি না দেওয়া দেওয়া থেকে ইনস্টাগ্রামে আনফলো এভাবেই তাদের সম্পর্কের ফাটল ধরা পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যদিও সম্পর্ক ভাঙন নিয়ে কেউ কোনও মন্তব্য করেননি। তবে বরখার ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট নিয়ে মন্তব্য করতেও ছাড়েননি নেটিজেনরা। গুঞ্জনে শোনা যাচ্ছে দীর্ঘ ১৩ বছরের দাম্পত্য ভেঙে অনেকদিন ধরেই আলাদা রয়েছেন তারা।
 

48

টলিপাড়ার অভিনেতা তথা বিধায়ক কাঞ্চন মল্লিক ও স্ত্রী পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্ক নিয়েও কম জলঘোলা হয়নি। সুখী দাম্পত্যে আচমকাই নেমে এসেছে ছন্দপতন। পরকীয়ার নাম জড়িয়েছে বিধায়ক কাঞ্চন মল্লিকের। টেলি অভিনেত্রী তথা তৃণমূল কর্মী শ্রীময়ী চট্টরাজের সঙ্গেই নয়া সম্পর্কে জড়িয়েছেন কাঞ্চন মল্লিক। তাদের এই সম্পর্ক নিয়েও কম জলঘোলা হয়নি। ৯ বছরের দাম্পত্য আইনের দরজা পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। স্বামী কাঞ্চনের বিরুদ্ধে মানসিক নির্যাতনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন। এবং তারপর থেকেই ছেলেকে নিয়ে আলাদা থাকেন অভিনেত্রী পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায়।
 

58


টলিপাড়ার জনপ্রিয় কাপল তথাগত মুখোপাধ্যায় ও দেবলীনা দত্ত সর্বদাই শিরোনামে থাকতে পছন্দ করেন। তবে চলতি বছরের বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দুই তারকা। দীর্ঘ আট বছরের বন্ধুত্ব - প্রেম- বিয়ে সব ভেঙে চুরমার। গত সেপ্টেম্বর মাস থেকেই আলাদা হয়ে গিয়েছেন তথাগত ও দেবলীনা। যদিও বিচ্ছেদের কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। তবে অন্য দুই তারকার সঙ্গে নাম জড়িয়েছে তথাগত ও দেবলীনার।

68

অনিন্দিতা বোস, টেলি সিরিয়ালের জনপ্রিয় মুখ।  টেলিভিশনের দর্শকদের কাছেও তিনি খুব জনপ্রিয়। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি সিরিয়ালে অভিনয় করে তিনি দর্শকদের মন জিতে নিয়েছেন। উত্তম কুমারের নাতি গৌরব চট্টোপাধ্যায়  ও পরিচালক অভিমন্যুর সঙ্গে গাটছড়া বেঁধেছিলেন অভিনেত্রী। যদিও কোনও বিয়েই টেকেনি অভিনেত্রীর।  দুবার বিয়ে ও দুবার ডিভোর্স। ব্যক্তিগত জীবনে কম ঝড়ঝাপটা যায়নি অনিন্দিতার উপর। ২০১৭ সাল থেকে অভিনেতা সৌরভ দাসের সঙ্গে লিভ-ইনে ছিলেন অভিনেত্রী। বর্তমানে তিনি মুম্বইয়ের বাসিন্দা। আর সৌরভ কলকাতার। শোনা যাচ্ছে, দুজনেই নাকি আলাদা সম্পর্কে জড়িয়েছেন। যদিও তা নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি কেউই। 
 

78


পার্টি থেকে জন্মদিনের ডিনার, একসঙ্গে বেড়াতে যাওয়া সব উৎসবেই একে অপরের সঙ্গে নজর কাড়ছেন বিশ্বাবসু ও দিতিপ্রিয়া। সোশ্যাল হ্যান্ডেলেও ছবিতে ভর্তি। এমনকী দুই পরিবারের মধ্যেও নাকি বেশ সুসম্পর্ক রয়েছে। একে অপরকে বন্ধু বলে দাবি করলেও নেটিজেনরা তা মানতে নারাজ। একাধিক সম্পর্ক গুঞ্জন উড়িয়ে দিলে গুজব যেন বন্ধ হচ্ছে না।  দিতিপ্রিয়া জানিয়েছেন, তিনি আপাতত সিঙ্গল। এখনই কোনও প্রেম করছেন না। তার সম্পর্কে যেভাবে লেখালিখি করা হচ্ছে তাতে বিষয়টা প্রচন্ড অস্বস্তিকর। বিশ্বাবসুকে নিয়ে যেভাবে জলঘোলা হচ্ছে সেই প্রসঙ্গে দিতিপ্রিয়া সাফ জানিয়েছেন, বিশ্বাবসু তার পারিবারিক বন্ধু । আর কোনও সম্পর্ক নেই তাদের। তবে কিছুদিন আগেই  প্রেমিকা অর্কজার সঙ্গে ব্রেকআপ হয়েছে বিশ্বাবসুর। ব্রেক আপ হলেও বন্ধুত্ব তাদের অটুট রয়েছে।
 

88

'মিঠাই'-এর শ্রীতমা এবং গঙ্গারামের প্রেমের কথা সকলেরই জানা। মোদক বাড়ির শ্রী-এর সঙ্গে খুল্লামখুল্লা রোম্যান্সে মজে থাকতেই ছোটপর্দার নেতাজী। ইনস্টাগ্রামে সর্বদাই কাপল গোল দিতেন টলিপাড়ার এই লাভবার্ডস। টলিপাড়ার অন্দরে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে সম্পর্কে ইতি টেনেছেন অভিষেক ও দিয়া।টলিপাড়ার এই চর্চিত জুটির ব্রেকআপ যে নেহাতই কোনও গুঞ্জন নয়, তারও প্রমাণ মিলেছে দুজনের সোশ্যাল মিডিয়ায়। গত ডিসেম্বরেই সাহসী ছবিতে পোজ দিয়ে নিজেদের প্রেমকে সকলের সামনে এনেছিলেন এই জুটি। দিয়াকে আদুরে চুম্বনে ভরিয়ে দিয়েছিলেন অভিষেক। সেই অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবিতে ভরেছিল সোশ্যাল মিডিয়া। কিন্তু সেই সমস্ত ঘনিষ্ঠ ছবি ইনস্টাগ্রাম থেকে মুছে ফেলেছেন দিয়া ও অভিষেক। কাউকেই আর কারোর সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যাচ্ছে না।এরপর থেকে জল্পনায় যেন শিলমোহর পড়েছে। তবে ছবি মুছলেও একে অপরকে আনফলো করেননি এই প্রাক্তন জুটি।