অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় এক লাফে মাটিতে গড়াগড়ি, সাংঘাতিক বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছিলেন মাস্টারজি

First Published 3, Jul 2020, 12:55 PM

সরোজ খানের প্রয়াণে বলিউড শোকস্তব্ধ। একের পর এক তারকাকে হারাতে বসেছে বি-টাউন। প্রথমে ইরফান খান, তারপর ঋষি কাপুর, সাজিদ খান। পরবর্তীতে সুশান্ত সিং রাজপুতের আরস্মিক মৃত্যুর রেশ এখনও কাটেনি। বরং তাঁর আত্মহত্যার যুক্তি মানতে নারাজ গোটা দেশ। এরই মধ্যে মাস্টারজি সরোজ খানের মৃত্যুতে শোকার্ত বলিউড। একের পর এক বলিউড শিল্পী, তারকারা তাঁর মৃত্যুতে শোকজ্ঞাপন করে চলেছেন। জানা গিয়েছে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন সরোজজি। মুম্বইের এক বেসরকারি হাসপাতালে গভীর রাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। 

<p>তার কোরিওগ্রাফির সম্বন্ধে যত প্রশংসা করা যায় ততই কম। বলিউডের তাবড় তাবড় অভিনেতা-অভিনেত্রীদের রীতিমত নাচ শিখিছেন তিনি।</p>

তার কোরিওগ্রাফির সম্বন্ধে যত প্রশংসা করা যায় ততই কম। বলিউডের তাবড় তাবড় অভিনেতা-অভিনেত্রীদের রীতিমত নাচ শিখিছেন তিনি।

<p>যার পক্ষে নাচাও সম্ভব ছিল না তাকেও ধরে ধরে নাচের প্রতিটি স্টেপ শিখিয়েছিলেন সরোজজি, তাও রীতিমত ধৈর্য্য নিয়ে। তাঁকেই ছবিতে কোরিওগ্রাফার হিসেবে সই করাতে প্রস্তুত থাকছেন প্রযোজক থেকে পরিচালকরা। </p>

যার পক্ষে নাচাও সম্ভব ছিল না তাকেও ধরে ধরে নাচের প্রতিটি স্টেপ শিখিয়েছিলেন সরোজজি, তাও রীতিমত ধৈর্য্য নিয়ে। তাঁকেই ছবিতে কোরিওগ্রাফার হিসেবে সই করাতে প্রস্তুত থাকছেন প্রযোজক থেকে পরিচালকরা। 

<p>রেখা, রীনা রায়, বিন্দিয়া গোস্বামি, শ্রীদেবী, মাধুরী দিক্ষীত, সকলেই নাটের তালিম নিয়েছিলেন মাস্টারজির কাছে। নিজের পেশাকেই নেশা হিসেবে মনে-প্রাণে মেনে নিয়েছিলেন তিনি। </p>

রেখা, রীনা রায়, বিন্দিয়া গোস্বামি, শ্রীদেবী, মাধুরী দিক্ষীত, সকলেই নাটের তালিম নিয়েছিলেন মাস্টারজির কাছে। নিজের পেশাকেই নেশা হিসেবে মনে-প্রাণে মেনে নিয়েছিলেন তিনি। 

<p>তবে এই পেশাকে নেশা হিসেবে মানতে গিয়েই সাংঘাতিক বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছিলেন তিনি। নব্বই দশকের এক ছবির শ্যুটিং চলছে। </p>

তবে এই পেশাকে নেশা হিসেবে মানতে গিয়েই সাংঘাতিক বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছিলেন তিনি। নব্বই দশকের এক ছবির শ্যুটিং চলছে। 

<p>বর্ষীয়ান অভিনেত্রী রেখাকে কোরিওগ্রাফ করানোর কথা সরোজজির। কথামতই রেখার সঙ্গে সিনেমার সেটে চলছে নাচের তালিম দেওয়া। তালিম দিতে দিতেই প্রায় ঘটে গিয়েছিল সেই অঘটন। </p>

বর্ষীয়ান অভিনেত্রী রেখাকে কোরিওগ্রাফ করানোর কথা সরোজজির। কথামতই রেখার সঙ্গে সিনেমার সেটে চলছে নাচের তালিম দেওয়া। তালিম দিতে দিতেই প্রায় ঘটে গিয়েছিল সেই অঘটন। 

<p>রেখাকে একটি কঠিন নাচের স্টেপ দেখাতে যান মাস্টারজি। মাটির মধ্যে শুয়ে গড়াগড়ি দিয়ে ছিল নাচের স্টেপটি। সেই সময় মা হতে চলেছেন তিনি। </p>

রেখাকে একটি কঠিন নাচের স্টেপ দেখাতে যান মাস্টারজি। মাটির মধ্যে শুয়ে গড়াগড়ি দিয়ে ছিল নাচের স্টেপটি। সেই সময় মা হতে চলেছেন তিনি। 

<p>প্রায় পাঁচ-ছয় মাসেরও বেশি হয়ে গিয়েছে সময়কাল। রেখা কিছুতেই সেই নাচের স্টেপটি সঠিকভাবে করতে পারছিলেন না। বলা ভাল মাস্টারজির কাছে পারফেক্ট স্টেপটি আসছিল না। </p>

প্রায় পাঁচ-ছয় মাসেরও বেশি হয়ে গিয়েছে সময়কাল। রেখা কিছুতেই সেই নাচের স্টেপটি সঠিকভাবে করতে পারছিলেন না। বলা ভাল মাস্টারজির কাছে পারফেক্ট স্টেপটি আসছিল না। 

<p>তিনি এক লাফে মাটিতে শুয়ে গড়াগড়ি দিতে করলেন। তারপর উঠে রেখাকে বললেন এইভাবে করতে হবে নাচ। সেই মুহূর্তে সেটে থাকা প্রত্যেকটি মানুষ অবাক। মাস্টারজি মাস্টারজি বলে ছুটে আসে সকলে। </p>

তিনি এক লাফে মাটিতে শুয়ে গড়াগড়ি দিতে করলেন। তারপর উঠে রেখাকে বললেন এইভাবে করতে হবে নাচ। সেই মুহূর্তে সেটে থাকা প্রত্যেকটি মানুষ অবাক। মাস্টারজি মাস্টারজি বলে ছুটে আসে সকলে। 

<p>কয়েক মুহূর্তের জন্য ওনার মাথাতেই ছিল না যে উনি অন্তঃসত্ত্বা। সাত-পাঁচ না ভেবেই রেখাকে নাচ বোঝাতে লাগলেন। যদিও পরে তাঁকে ধরে হাসপাতাল নিয়ে গেলে তাঁকে এবং তাঁর সন্তানকে সুস্থ বলেই জানান ডাক্তার।  </p>

কয়েক মুহূর্তের জন্য ওনার মাথাতেই ছিল না যে উনি অন্তঃসত্ত্বা। সাত-পাঁচ না ভেবেই রেখাকে নাচ বোঝাতে লাগলেন। যদিও পরে তাঁকে ধরে হাসপাতাল নিয়ে গেলে তাঁকে এবং তাঁর সন্তানকে সুস্থ বলেই জানান ডাক্তার।  

loader