অঙ্কিতার মত তাঁকে কেউ ভালবাসবে না, বুঝেছিলেন সুশান্ত, মুখ খুললেন অভিনেতার ডাক্তার

First Published 20, Jun 2020, 7:53 AM

পবিত্র রিশতা ধারাবাহিক থেকে ঘনিষ্ঠতার শুরু অঙ্কিতা লোখান্ডে এবং সুশান্ত সিং রাজাপুতের। সম্পর্কে বাঁধা পড়তেও বেশি সময় নেননি তাঁরা। ধারাবাহিকটি চার-পাঁচ মাসের মধ্যে ছেড়ে দিলও বছর ছয়েক ধরে ছিল তাঁদের সম্পর্ক। অঙ্কিতা বিয়ের জন্য প্রস্তুতি নিতে চাইলেও সেই সময় সুশান্ত প্রস্তুত ছিলেন না। সেই আক্ষেপ নিয়েই চলে গেলেন অভিনেতা। সুশান্তের সাইকোলজিস্ট কেসারি ছাবড়া মুখ খুললেন অবশেষে। সুশান্ত শেষে কয়েক মাস বারে বারে অঙ্কিতার কথা তুলতেন তাঁর কাছে। অঙ্কিতার সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে তিনি যে কত বড় ভুল করেছিলেন তা সর্বদা টের পেতেন। 
 

<p>আরও বেশি বুঝেছিলেন রিয়া চক্রবর্তীর ব্যবহারে। কেসারি ছাবড়ার সাক্ষাৎকারে এবার জট ধীরে ধীরে খুলবে নাকি রহস্য আরও ঘনীভূত হবে সেটাই দেখার বিষয়। </p>

আরও বেশি বুঝেছিলেন রিয়া চক্রবর্তীর ব্যবহারে। কেসারি ছাবড়ার সাক্ষাৎকারে এবার জট ধীরে ধীরে খুলবে নাকি রহস্য আরও ঘনীভূত হবে সেটাই দেখার বিষয়। 

<p>রিয়া চক্রবর্তীর ব্যবহারে খুবই দুঃখিত থাকতেন সুশান্ত। রিয়ার ব্যবহারের বিষয় অবশ্য ডাক্তার ছাবড়া কিছুই তেমন বলেননি। তবে সুশান্তের প্রতি রিয়ার ব্যবহারই অভিনেতার অবসাদের প্রধান কারণগুলির মধ্যে একটি। </p>

রিয়া চক্রবর্তীর ব্যবহারে খুবই দুঃখিত থাকতেন সুশান্ত। রিয়ার ব্যবহারের বিষয় অবশ্য ডাক্তার ছাবড়া কিছুই তেমন বলেননি। তবে সুশান্তের প্রতি রিয়ার ব্যবহারই অভিনেতার অবসাদের প্রধান কারণগুলির মধ্যে একটি। 

<p>অন্যদিকে বেশ কিছু সম্পর্কও নিমেষের মধ্যে ভেঙে যায় সুশান্তের। ডাক্তারের কথায়, কৃতি স্যাননের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল সুশান্তের যা বেশি দূর গড়ায়নি। </p>

অন্যদিকে বেশ কিছু সম্পর্কও নিমেষের মধ্যে ভেঙে যায় সুশান্তের। ডাক্তারের কথায়, কৃতি স্যাননের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল সুশান্তের যা বেশি দূর গড়ায়নি। 

<p>এমনকি এক পরিচালকের মেয়েকেও ডেট করতেন সুশান্ত। তার পরিচয় দিতে নারাজ ডাক্তার। তবে পরপর সম্পর্কে চিড় ধরায় ভেঙে পড়েছিলেন সুশান্ত। </p>

এমনকি এক পরিচালকের মেয়েকেও ডেট করতেন সুশান্ত। তার পরিচয় দিতে নারাজ ডাক্তার। তবে পরপর সম্পর্কে চিড় ধরায় ভেঙে পড়েছিলেন সুশান্ত। 

<p>তিনি বুঝেছিলেন, অঙ্কিতা তাঁকে যতটা ভালবাসত, তেমনভাবে আর কেউ কখনই তাঁকে ভালবাসতে পারবে না। কারণ অঙ্কিতা তাঁকে প্রাণ দিয়ে ভাল বেসেছিলেন। </p>

তিনি বুঝেছিলেন, অঙ্কিতা তাঁকে যতটা ভালবাসত, তেমনভাবে আর কেউ কখনই তাঁকে ভালবাসতে পারবে না। কারণ অঙ্কিতা তাঁকে প্রাণ দিয়ে ভাল বেসেছিলেন। 

<p>এবার প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি সুশান্ত খানিক বাধ্য হয়েই রিয়ার সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছিলেন। রিয়ার সঙ্গে সম্পর্কে মোটেই খুশি ছিলেন না সুশান্ত। তবুও বিয়ের সিদ্ধান্ত তাহলে কিসের।</p>

এবার প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি সুশান্ত খানিক বাধ্য হয়েই রিয়ার সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছিলেন। রিয়ার সঙ্গে সম্পর্কে মোটেই খুশি ছিলেন না সুশান্ত। তবুও বিয়ের সিদ্ধান্ত তাহলে কিসের।

<p>মহেশ ভাট যে রিয়াকে উপদেশ দিয়েছিলেন সুশান্তকে ছেড়ে দেওয়ার, তাও জানতেন অভিনেতা। মহেশ ভাটের কথা মত সুশান্তকে ছেড়েও চলে যান রিয়া। </p>

মহেশ ভাট যে রিয়াকে উপদেশ দিয়েছিলেন সুশান্তকে ছেড়ে দেওয়ার, তাও জানতেন অভিনেতা। মহেশ ভাটের কথা মত সুশান্তকে ছেড়েও চলে যান রিয়া। 

<p>তারপর হয়তো অঙ্কিতার সঙ্গে ব্রেক আপের আক্ষেপ ভুলতে পারছিলেন সুশান্ত। অঙ্কিতাকে কি তাহলে শেষ নিঃশ্বাস অবধি মনে করে গিয়েছিলেন সুশান্ত।</p>

তারপর হয়তো অঙ্কিতার সঙ্গে ব্রেক আপের আক্ষেপ ভুলতে পারছিলেন সুশান্ত। অঙ্কিতাকে কি তাহলে শেষ নিঃশ্বাস অবধি মনে করে গিয়েছিলেন সুশান্ত।

<p>অন্যদিকে সুশান্তের মৃত্যুর পর অঙ্কিতাকে যেভাবে বিধ্বস্ত অবস্থায় সুশান্তের বাড়ির সামনে দেখা গিয়েছিল তাতে বলা মুশকিল যে তাঁদের মধ্যে আর ভালবাসার কোনও সম্পর্কই নেই। </p>

অন্যদিকে সুশান্তের মৃত্যুর পর অঙ্কিতাকে যেভাবে বিধ্বস্ত অবস্থায় সুশান্তের বাড়ির সামনে দেখা গিয়েছিল তাতে বলা মুশকিল যে তাঁদের মধ্যে আর ভালবাসার কোনও সম্পর্কই নেই। 

<p>সুশান্তের পরিবারের পাশেও যথাসাধ্য থাকার চেষ্টা করে চলেছেন অঙ্কিতা। সুশান্ত এবং অঙ্কিতাকে একসঙ্গে ব্রেক আপের পরও দেখলে ভক্তরা বলত মেড ফর ইচ আদার।  </p>

সুশান্তের পরিবারের পাশেও যথাসাধ্য থাকার চেষ্টা করে চলেছেন অঙ্কিতা। সুশান্ত এবং অঙ্কিতাকে একসঙ্গে ব্রেক আপের পরও দেখলে ভক্তরা বলত মেড ফর ইচ আদার।  

<p>এই একই ভাবনা হয়তো সুশান্তের মনে কোথাও ছিল। অঙ্কিতা আজ পাশে থাকলে কি সত্যি এই দিন দেখতে হত সুশান্তকে। </p>

এই একই ভাবনা হয়তো সুশান্তের মনে কোথাও ছিল। অঙ্কিতা আজ পাশে থাকলে কি সত্যি এই দিন দেখতে হত সুশান্তকে। 

<p>প্রসঙ্গত, ডাক্তার ছাবড়া এও বলেন, সুশান্ত ভাবতেন, তাঁর বাইপোলার চিন্তাভাবনা মাথায় ঘোরে। </p>

প্রসঙ্গত, ডাক্তার ছাবড়া এও বলেন, সুশান্ত ভাবতেন, তাঁর বাইপোলার চিন্তাভাবনা মাথায় ঘোরে। 

<p>বাইপোলার ডিসঅর্ডারে আত্মহত্যার চিন্তাভাবনা আসাটা স্বাভাবিক। তবে সঠিক চিকিৎসায় মানুষ সুস্থ হয়ে ওঠে। সুশান্ত নিজেকে বাইপোলার ভাবলেও ডাক্তার এ বিষয় কোনও মতামত দেননি।</p>

বাইপোলার ডিসঅর্ডারে আত্মহত্যার চিন্তাভাবনা আসাটা স্বাভাবিক। তবে সঠিক চিকিৎসায় মানুষ সুস্থ হয়ে ওঠে। সুশান্ত নিজেকে বাইপোলার ভাবলেও ডাক্তার এ বিষয় কোনও মতামত দেননি।

loader