19

একাধিক সম্পর্কেই শুধু নয়, নানা কারণেই বারংবার শিরোনামে উঠে এসেছেন ঐশ্বর্য। একটি ছবিকে ঘিরেই আজও বিতর্কের শিরোনামে রয়েছেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন।

Subscribe to get breaking news alerts

29

ছবির মুখ্য অভিনেত্রী ছিলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন। কিছুদিন শ্যুটিং করার পর সেই ছবিতে আর কাজ করতে রাজি হননি ঐশ্বর্য। আর এই নিয়েই বিতর্কের শুরু।

39

সালটা ২০১১। পরিচালক মধুর ভান্ডারকরের ছবিতে অভিনয় করছিলেন ঐশ্বর্য। মধুর জানিয়েছিলেন ঐশ্বর্য নাকি তার গর্ভাবস্থার কথা গোপন করে ছবিতে শুটিং করেছিলেন।

49

এই ছবির কারণেই বিশাল ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছিল মধুর ভান্ডারকরকে। কারণ একটানা ৬৫ দিন শুটিং করার পর ঐশ্বর্যর গর্ভাবস্থার কথা প্রকাশ্যে এসেছিল।

59

ঐশ্বর্যর গর্ভাবস্থার কথা জানাজানি হতেই মাঝপথে শুটিং বন্ধ করে দিয়েছিল। তারপরই করিনা কাপুরকে ছবির জন্য সাইন করা হয়েছিল। যদিও ছবিটি বক্স অফিসে সাফল্য পায়নি। তারপরই অ্যাশকে নিয়ে একাধিক মন্তব্য  করেছিল মধুর।

69

মধুর একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিল যে, ঐশ্বর্য নিজে এই গর্ভাবস্থার কথা জানান নি, সংবাদ সংস্থার পক্ষ থেকে ঐশ্বর্যর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর জানতে পেরেছিলাম।
 

79

একের পর এক অভিযোগে বিদ্ধ হয়েছিলেন ঐশ্বর্য। অবশেষে পুত্রবধূর উপর মধুরের অভিযোগের পরে সকলের সামনে এর যোগ্য জবাব দিয়েছিলেন অমিতাভ।

89

পুত্রবধূ ঐশ্বর্যর সম্মান রক্ষা করে অমিতাভ জানিয়েছিল, ছবিতে সাইন করানোর সময় ঐশ্বর্য যে বিবাহিত সেটা তারা জানত, তাহলে অভিনেতাদের কি বিয়ে করা উচিত নয়, তাদের কি বাচ্চাও হতে পারবে না। আমি মনে করি না এরম কোন নিয়ম বা চুক্তি থাকা উচিত।

99


বরাবরই নিজেকে বিতর্ক থেকে দূরে রাখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু শেষমেষ তা আর পারেননি প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া।