কালো স্থূল মহিলাদের নগ্নতা কি অপছন্দ, ইনস্টাগ্রামের বিরুদ্ধে উঠল বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ, দেখুন

First Published 24, Aug 2020, 11:10 PM

ইনস্টাগ্রাম কি বর্ণবিদ্বেষী আচরণ করে? কৃষ্ণাঙ্গ স্থূল মহিলাদের নগ্নতা কি তাদের পর্যালোচকদের অপছন্দের? বেছে বেছে তাদের ছবিকেই কি সরিয়ে দেওয়া হয়? এরকম দারুণ গুরুতর সব প্রশ্ন তুলে দিলেন এক ব্রিটিশ মডেল।

 

<p>ওই মডেলের নাম নিওমে নিকোলাস-উইলিয়ামস। তিনি ইনস্টাগ্রামে তাঁর একটি টপলেস ছবি অর্থাৎ উর্ধাঙ্গ উন্মুক্ত করা ছবি পোস্ট করেছিলেন। বুকের উপর হাত রেখে নিজেকে জড়িয়ে ধরে থাকতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে।</p>

<p>&nbsp;</p>

ওই মডেলের নাম নিওমে নিকোলাস-উইলিয়ামস। তিনি ইনস্টাগ্রামে তাঁর একটি টপলেস ছবি অর্থাৎ উর্ধাঙ্গ উন্মুক্ত করা ছবি পোস্ট করেছিলেন। বুকের উপর হাত রেখে নিজেকে জড়িয়ে ধরে থাকতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে।

 

<p>সেই ছবিটির শৈল্পিক সৌন্দর্যের প্রশংসা করেছেন অনেকেই। সেইসঙ্গে অনেকে এই কথাও বলেছিলেন নিওমের মতো স্থুল কৃষ্ণাঙ্গী অনেকেই তাঁদের দেহ নিয়ে স্বচ্ছন্দ নন, গুটিয়ে থাকেন ভিতরে ভিতরে। এই ছবি তাঁদের অনুপ্রেরণা দেবে।</p>

<p>&nbsp;</p>

সেই ছবিটির শৈল্পিক সৌন্দর্যের প্রশংসা করেছেন অনেকেই। সেইসঙ্গে অনেকে এই কথাও বলেছিলেন নিওমের মতো স্থুল কৃষ্ণাঙ্গী অনেকেই তাঁদের দেহ নিয়ে স্বচ্ছন্দ নন, গুটিয়ে থাকেন ভিতরে ভিতরে। এই ছবি তাঁদের অনুপ্রেরণা দেবে।

 

<p>কিন্তু ইনস্টাগ্রামের পক্ষ থেকে বারবার নগ্নতা বা অনুপযুক্ত কনটেন্ট বিষয়ে তাদের নীতিগুলি লঙ্ঘন করছে বলে এই ছবিটি ডিলিট করে দেওয়া হচ্ছিল বলে অভিযোগ। এরপরই ইনস্টার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় কালো স্থূলকায় মহিলাদের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষী আচরণের অভিযোগ তোলেন নিওমে।</p>

<p>&nbsp;</p>

কিন্তু ইনস্টাগ্রামের পক্ষ থেকে বারবার নগ্নতা বা অনুপযুক্ত কনটেন্ট বিষয়ে তাদের নীতিগুলি লঙ্ঘন করছে বলে এই ছবিটি ডিলিট করে দেওয়া হচ্ছিল বলে অভিযোগ। এরপরই ইনস্টার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় কালো স্থূলকায় মহিলাদের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষী আচরণের অভিযোগ তোলেন নিওমে।

 

<p>তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন তাঁর মতো অর্ধনগ্ন অনেক 'শ্বেতাঙ্গ এবং অস্থিচর্মসার' মহিলাদের ছবি দেখা যায় ইনস্টাগ্রামে। কিন্তু, তাদের সেইসব ছবি সরানো হয় না।</p>

<p>&nbsp;</p>

তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন তাঁর মতো অর্ধনগ্ন অনেক 'শ্বেতাঙ্গ এবং অস্থিচর্মসার' মহিলাদের ছবি দেখা যায় ইনস্টাগ্রামে। কিন্তু, তাদের সেইসব ছবি সরানো হয় না।

 

<p>এরপরই আইওয়ান্টটুসিনিওমে (আমি নিওমে কে দেখতে চাই) এই হ্যাশট্যাগটি ইনস্টাগ্রামে ট্রেন্ড করা শুরু করে। এমনকী ব্রিটেনের দেওয়ালেও এই স্লোগান দেখা যায়। অনেকেই ইনস্টাগ্রামের বিরুদ্ধে 'ফ্যাটফোবিয়া' বা স্থূলকায় বিদ্বেষের অভিযোগ এনেছেন।</p>

এরপরই আইওয়ান্টটুসিনিওমে (আমি নিওমে কে দেখতে চাই) এই হ্যাশট্যাগটি ইনস্টাগ্রামে ট্রেন্ড করা শুরু করে। এমনকী ব্রিটেনের দেওয়ালেও এই স্লোগান দেখা যায়। অনেকেই ইনস্টাগ্রামের বিরুদ্ধে 'ফ্যাটফোবিয়া' বা স্থূলকায় বিদ্বেষের অভিযোগ এনেছেন।

<p>প্রশ্ন হল নিওমের ছবিগুলি কি সত্যিই ইনস্টার নীতি লঙ্ঘন করছিল? ইনস্টাগ্রামের নির্দেশিকা অনুসারে, সম্পূর্ণ নগ্নতা, অনুপযুক্ত কনটেন্ট, যৌনাঙ্গে, নগ্ন নিতম্ব, যৌনক্রিয়া এবং মহিলা স্তনবৃন্ত প্রদর্শন করা বাদে অন্য সব ছবিকেই অনুমোদন দেওয়া হবে। নিওমের ছবির ক্ষেত্রে স্তনের অনেকটা অংশ উন্মুক্ত থাকলেও স্তনবৃন্ত প্রদর্শিত হয়নি।</p>

প্রশ্ন হল নিওমের ছবিগুলি কি সত্যিই ইনস্টার নীতি লঙ্ঘন করছিল? ইনস্টাগ্রামের নির্দেশিকা অনুসারে, সম্পূর্ণ নগ্নতা, অনুপযুক্ত কনটেন্ট, যৌনাঙ্গে, নগ্ন নিতম্ব, যৌনক্রিয়া এবং মহিলা স্তনবৃন্ত প্রদর্শন করা বাদে অন্য সব ছবিকেই অনুমোদন দেওয়া হবে। নিওমের ছবির ক্ষেত্রে স্তনের অনেকটা অংশ উন্মুক্ত থাকলেও স্তনবৃন্ত প্রদর্শিত হয়নি।

<p>বস্তুত, ইনস্টাগ্রামের নীতিগুলি, বিশেষ করে মহিলাদের দেহগুলি সম্পর্কে তাঁদের নীতিতে ভারসাম্যের অভাবের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। এর আগেও তাদের বিরুদ্ধে স্থূলকায় মহিলাদের বিরুদ্ধে বৈষম্যের অভিযোগ উঠেছে। অনেক স্থূলকায় ব্যবহারকারীই এই অবস্থার মুখোমুখি হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।</p>

<p>&nbsp;</p>

বস্তুত, ইনস্টাগ্রামের নীতিগুলি, বিশেষ করে মহিলাদের দেহগুলি সম্পর্কে তাঁদের নীতিতে ভারসাম্যের অভাবের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। এর আগেও তাদের বিরুদ্ধে স্থূলকায় মহিলাদের বিরুদ্ধে বৈষম্যের অভিযোগ উঠেছে। অনেক স্থূলকায় ব্যবহারকারীই এই অবস্থার মুখোমুখি হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

 

<p>২০১৮ সালে, আরেক প্লাস সাইজের মডেল কাতানা ফ্যাটালেও একই অভিযোগ করেছিলেন। তাঁর 'ফ্যাটকিনি' পরে তোলা বাতিল করা হয়েছিল। পরে তিনি সেলিব্রিটি কিম কার্দাশিয়ানের একটি ছবির সঙ্গে তাঁর সেই ছবির একটি কোলাজ পোস্ট করে দেখিয়ে দিয়েছিলেন কার্দাশিয়ান একই রকম ছবি পোস্ট করার পরও তাঁর ছবিগুলি অনুমোদন পেয়েছিল।</p>

২০১৮ সালে, আরেক প্লাস সাইজের মডেল কাতানা ফ্যাটালেও একই অভিযোগ করেছিলেন। তাঁর 'ফ্যাটকিনি' পরে তোলা বাতিল করা হয়েছিল। পরে তিনি সেলিব্রিটি কিম কার্দাশিয়ানের একটি ছবির সঙ্গে তাঁর সেই ছবির একটি কোলাজ পোস্ট করে দেখিয়ে দিয়েছিলেন কার্দাশিয়ান একই রকম ছবি পোস্ট করার পরও তাঁর ছবিগুলি অনুমোদন পেয়েছিল।

<p>কিন্তু কেন এমনটা করে ইনস্টাগ্রাম? সত্যিই কি তারা স্থূলকায় কিংবা কৃষ্ণাঙ্গদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করে? ইনস্টাগ্রামে সূত্রে জানা গিয়েছে গন্ডোগোলটা হয়েছে তাদের এআই বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার কারণে। নগ্ন ছবি পোস্ট আটকাতে তাদের এআই-কে শেখানো আছে ৬০ শতাংশ ত্বক দেখা গেলেই তা আটকে দিতে। আর তাই, স্থূলকায়দের ছবি অনেক সময়ই ভুলবশতঃ আটকে দেওয়া হচ্ছে। &nbsp;</p>

<p>&nbsp;</p>

কিন্তু কেন এমনটা করে ইনস্টাগ্রাম? সত্যিই কি তারা স্থূলকায় কিংবা কৃষ্ণাঙ্গদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করে? ইনস্টাগ্রামে সূত্রে জানা গিয়েছে গন্ডোগোলটা হয়েছে তাদের এআই বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার কারণে। নগ্ন ছবি পোস্ট আটকাতে তাদের এআই-কে শেখানো আছে ৬০ শতাংশ ত্বক দেখা গেলেই তা আটকে দিতে। আর তাই, স্থূলকায়দের ছবি অনেক সময়ই ভুলবশতঃ আটকে দেওয়া হচ্ছে।  

 

<p>নিওমে-র ঘটনা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ক্ষোভের পর, ইনস্টাগ্রাম তাদের অর্ধনগ্নতা নিয়ে নীতিটি আপডেট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আর তাদের পর্যালোচকদের নতুন করে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। ইনস্টাগ্রাম নিওমে-র কাছে ভুল স্বীকার করে জানিয়েছে তাঁর ছবিগুলি 'অন্যায়ভাবে' সরানো হয়েছিল। ইতিমধ্যেই ছববিগুলি আবার নিওমে-র ইনস্টাগ্রাম পেজে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।</p>

<p>&nbsp;</p>

নিওমে-র ঘটনা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ক্ষোভের পর, ইনস্টাগ্রাম তাদের অর্ধনগ্নতা নিয়ে নীতিটি আপডেট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আর তাদের পর্যালোচকদের নতুন করে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। ইনস্টাগ্রাম নিওমে-র কাছে ভুল স্বীকার করে জানিয়েছে তাঁর ছবিগুলি 'অন্যায়ভাবে' সরানো হয়েছিল। ইতিমধ্যেই ছববিগুলি আবার নিওমে-র ইনস্টাগ্রাম পেজে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

 

loader