'বিজেপি করার অপরাধ', তৃণমূলের 'মারে মাথা ফাটল' বুথ সভাপতির

First Published 26, Sep 2020, 9:28 AM

বিজেপি করায় বুথ সভাপতিকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমানের বড়নীলপুর জাতীয় সড়কের ধারে চৌরঙ্গী ক্লাবের কাছে। বাড়ি থেকে বেরিয়ে কাজে যাওয়ার পথে তৃণমূলের লোকজন তাঁর উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। বেপরোয়াভাবে তাঁর উপর হামলা চালায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। বেধড়র মারধরের জেরে মাথা ফাটে বিজেপির ওই বুথ সভাপতির। স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁকে উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

<p>বিজেপির বুথ সভাপতিকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বেধড়ক মারধরের জেরে মাথা ফেটে যায় ওই বিজেপি নেতার। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।</p>

বিজেপির বুথ সভাপতিকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বেধড়ক মারধরের জেরে মাথা ফেটে যায় ওই বিজেপি নেতার। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

<p>জানাগেছে, বর্ধমানের বেচারহাটের বাসিন্দা বিজেপির বুথ সভাপতি নির্বাচিত হন অরিজিৎ কৈবর্ত দাস। অভিযোগ, কাজের জন্য বাড়ি থেকে বেরোলে রাস্তা আটকে তাঁকে বেধড়ক মারধর করে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা।</p>

জানাগেছে, বর্ধমানের বেচারহাটের বাসিন্দা বিজেপির বুথ সভাপতি নির্বাচিত হন অরিজিৎ কৈবর্ত দাস। অভিযোগ, কাজের জন্য বাড়ি থেকে বেরোলে রাস্তা আটকে তাঁকে বেধড়ক মারধর করে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা।

<p>মারের চোটে মাথায় গুরুতর চোট লাগে অরিজিতের। স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁকে উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিক্য়াল কলেজে ভর্তি করে।<br />
&nbsp;</p>

মারের চোটে মাথায় গুরুতর চোট লাগে অরিজিতের। স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁকে উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিক্য়াল কলেজে ভর্তি করে।
 

<p>আক্রান্ত বিজেপি নেতার দাবি, তৃণমূল পার্টি অফিসের সামনে বিজেপি করার অপারাধে তাঁকে মারধর করা হয়। বিজেপি করা চলবে না বলে তাঁকে হুমকিও দেয় তৃণমূল নেতারা।</p>

আক্রান্ত বিজেপি নেতার দাবি, তৃণমূল পার্টি অফিসের সামনে বিজেপি করার অপারাধে তাঁকে মারধর করা হয়। বিজেপি করা চলবে না বলে তাঁকে হুমকিও দেয় তৃণমূল নেতারা।

<p>বিজেপি নেতার উপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। ঘটনায় বর্ধমান থানায় অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্ত বিজেপি নেতা। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে বর্ধমান থানা।</p>

বিজেপি নেতার উপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। ঘটনায় বর্ধমান থানায় অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্ত বিজেপি নেতা। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে বর্ধমান থানা।

loader