লকডাউনে মানবিক উদ্যোগ, 'বিনেপয়সার বাজার' বসল বর্ধমানে

First Published 30, Apr 2020, 7:08 PM

লকডাউনে দুর্ভোগ চরমে। কাজ হারিয়ে চরম আর্থিক অনটনে দিন কাটাচ্ছেন অনেকেই। নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী বা সব্জির কেনার মতোও সামর্থ্য় নেই তাঁদের। দুঃস্থ মানুষের জন্য 'বিনেপয়সার বাজার' বসল পূর্ব বর্ধমানে। ব্যাগ ভর্তি আনাজ নিয়ে বাড়ি ফিরলেন একশোরও বেশি মানুষ। 

<p>করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে ঘরবন্দি থাকা ছাড়া উপায় নেই। দীর্ঘমেয়াদি লকডাউন আর্থিক বিপর্যয় ডেকে আনবে না তো? আশঙ্কা বাড়ছে ক্রমশই।</p>

করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে ঘরবন্দি থাকা ছাড়া উপায় নেই। দীর্ঘমেয়াদি লকডাউন আর্থিক বিপর্যয় ডেকে আনবে না তো? আশঙ্কা বাড়ছে ক্রমশই।

<p>যতদিন যাচ্ছে, সাধারণ মানুষের দুর্ভোগও ততই বাড়ছে। প্রতিদিনের রোজগারে যাঁদের সংসার চলে, সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে তাঁরাই। কাজ হারিয়ে দিন কাটছে আর্থিক সংকটে।&nbsp;</p>

যতদিন যাচ্ছে, সাধারণ মানুষের দুর্ভোগও ততই বাড়ছে। প্রতিদিনের রোজগারে যাঁদের সংসার চলে, সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে তাঁরাই। কাজ হারিয়ে দিন কাটছে আর্থিক সংকটে। 

<p>দুঃস্থ মানুষদের জন্য 'বিনেপয়সার বাজার' বসল পূর্ব বর্ধমানের চাঁদসোনা এলাকায়। বাজারে আলু, পেঁয়াজ, কুমড়ো, ঝিঙে সবই ছিল।</p>

দুঃস্থ মানুষদের জন্য 'বিনেপয়সার বাজার' বসল পূর্ব বর্ধমানের চাঁদসোনা এলাকায়। বাজারে আলু, পেঁয়াজ, কুমড়ো, ঝিঙে সবই ছিল।

<p>যাঁরা বাজারে এসেছিলেন, তাঁদের সকলেরই মুখে ছিল মাস্ক। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আনাজ ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিলেন একশোরও বেশি মানুষ।</p>

যাঁরা বাজারে এসেছিলেন, তাঁদের সকলেরই মুখে ছিল মাস্ক। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আনাজ ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিলেন একশোরও বেশি মানুষ।

<p>বর্ধমানের এই 'বিনেপয়সার বাজার'-এ হাজির ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক নিশীথ মল্লিক-সহ বহু বিশিষ্ট ব্যক্তি।</p>

বর্ধমানের এই 'বিনেপয়সার বাজার'-এ হাজির ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক নিশীথ মল্লিক-সহ বহু বিশিষ্ট ব্যক্তি।

loader