কলকাতায় ফের কমল পেট্রোলের দাম, ছুটির দিনে ঘুরতে যাবার প্ল্যানে ব্য়স্ত বাঙালি

First Published 20, Sep 2020, 11:39 AM

করোনা আবহে  রাজ্য়ের পরিবহণ ব্য়বস্থার হাল খারপ। এখনও চালু হয়নি লোকাল ট্রেন। নেই পর্যাপ্ত বাসও।  বেশিরভাগ বেসরকারি সংস্থার কর্মীরাই বাধ্য় হয়ে বাইকে চলা ফেরা করছে। সবজি-মাছ ব্য়বসায়ীরাও বাধ্য হয়ে গাড়ির সাহায্য় নিয়েছে। জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধিতে জেরবার ছিল রাজ্য়ের নাগরিক। এই পরিস্থিতিতে সুখবর,  কলকাতায় ফের কমল পেট্রোলের দাম। 

<p>সুখবর, &nbsp;কলকাতায় ফের কমল পেট্রোলের দাম। কলকাতায় পেট্রোলের দাম ৮২.৬৫ টাকায় দাড়িয়েছে।</p>

সুখবর,  কলকাতায় ফের কমল পেট্রোলের দাম। কলকাতায় পেট্রোলের দাম ৮২.৬৫ টাকায় দাড়িয়েছে।

<p><br />
রবিবার দিল্লিতে পেট্রোলের দাম ৮১.১৪ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭১.৫৮ টাকা। পাশাপশি মুম্বইতে পেট্রোলের দাম ৮৭.৮২টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭৮.০২ টাকা। কমেছে ২৫ পয়সা।</p>


রবিবার দিল্লিতে পেট্রোলের দাম ৮১.১৪ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭১.৫৮ টাকা। পাশাপশি মুম্বইতে পেট্রোলের দাম ৮৭.৮২টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭৮.০২ টাকা। কমেছে ২৫ পয়সা।

<p>যেখানে শনিবার কলকাতায় পেট্রোলের দাম ৮২.৬৭ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭৫.৩২ টাকা। রবিবার তাই যৎ সামান্য হলেও পেট্রোলের দাম কমেছে কলকাতায়।</p>

যেখানে শনিবার কলকাতায় পেট্রোলের দাম ৮২.৬৭ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭৫.৩২ টাকা। রবিবার তাই যৎ সামান্য হলেও পেট্রোলের দাম কমেছে কলকাতায়।

<p>অপরদিকে শনিবার দিল্লিতে পেট্রোলের দাম ৮১.১৪ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭১.৮২ টাকা। কমেছিল ২০ পয়সা। পাশাপশি মুম্বইতে পেট্রোলের দাম ৮৭.৮২টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭৮.২৭ টাকা। কমেছিল ২১ পয়সা।<br />
&nbsp;</p>

অপরদিকে শনিবার দিল্লিতে পেট্রোলের দাম ৮১.১৪ টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭১.৮২ টাকা। কমেছিল ২০ পয়সা। পাশাপশি মুম্বইতে পেট্রোলের দাম ৮৭.৮২টাকা এবং ডিজেলের দাম ৭৮.২৭ টাকা। কমেছিল ২১ পয়সা।
 

<p><br />
করোনা আবহে &nbsp;রাজ্য়ের পরিবহণ ব্য়বস্থার হাল খারপ। এখনও চালু হয়নি লোকাল ট্রেন। নেই পর্যাপ্ত বাসও। &nbsp;বেশিরভাগ বেসরকারি সংস্থার কর্মীরাই বাধ্য় হয়ে বাইকে চলা ফেরা করছে। সবজি-মাছ ব্য়বসায়ীরাও বাধ্য হয়ে গাড়ির সাহায্য় নিয়েছে। তবে জ্বালানির মূল্য কমায় খানিকটা স্বস্তিতে ফিরল কলকাতাবাসী।</p>


করোনা আবহে  রাজ্য়ের পরিবহণ ব্য়বস্থার হাল খারপ। এখনও চালু হয়নি লোকাল ট্রেন। নেই পর্যাপ্ত বাসও।  বেশিরভাগ বেসরকারি সংস্থার কর্মীরাই বাধ্য় হয়ে বাইকে চলা ফেরা করছে। সবজি-মাছ ব্য়বসায়ীরাও বাধ্য হয়ে গাড়ির সাহায্য় নিয়েছে। তবে জ্বালানির মূল্য কমায় খানিকটা স্বস্তিতে ফিরল কলকাতাবাসী।

loader