110

সেঞ্চুরিয়নে বক্সিং ডে টেস্টের প্রথম দিনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে অনবদ্য ব্যাটিং করেছেন কেএল রাহুল। প্রোটিয়াভূমে শতরানের স্মরণীয় ইনিংস খেলেছেন ভারতীয়  সহ অধিনায়ক। ২১৮ বলে ১৪টি চার ও একটি ছয়ের সাহায্যে সেঞ্চুরি করেন ভারতীয় তরুণ ওপেনার।

Subscribe to get breaking news alerts

210

কেএল রাহুলের অনবদ্য সেঞ্চুরির সৌজন্যেই সেঞ্চুরিয়নে প্রথম টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভালো জায়গায় রয়েছে ভারতীয় দল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরির করার সঙ্গে সঙ্গে একাধিক রেকর্ড গড়েন কেএল রাহুল।

310

ওপেনিং দ্বিতীয় ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে শতরান পেলেন দ্বিতীয় হিসেবে। ২০০৭ সালে প্রথম শতরান করেছিলেন ওয়াসিম জাফর। সেটা ছিল কেপ টাউনে। কেএল রাহুল সেঞ্চুরি করলেন সেঞ্চুরিয়নে।
 

410

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটের মক্কা বলা হয় সুপার স্পোর্ট সেঞ্চুরিয়নের মাঠকে। এই মাঠে এর আগে আরও দুই ভারতীয় ক্রিকেটার। তারা হলেন কিংবদন্তী সচিনতেন্ডুলকর ও বর্তমান ভারতীয় টেস্ট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এবার তৃতীয় ভারতীয় হিসেবে সেই তালিকায় ঢুকে পড়লেন রাহুল।
 

510

কেএল রাহুল সফররত দেশের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসাবে দক্ষিণ আফ্রিকা মাটিতে শতরান করলেন। এর আগে অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনার ক্রিস গেইল এই কীর্তি স্থাপন করেছিলেন। 
 

610

কেএল রাহুল নিজের ৪১ টি টেস্টের সংক্ষিপ্ত কেরিয়ারে যেখানেই খেলেছেন সেখানেই সেঞ্চুরি করছেন। লোকেশ রাহুল যে সব দেশে ও মহাদেশে টেস্ট খেলতে নেমেছেন,  সব জায়গায় ব্যক্তিগত শতরান করার অনবদ্য নজির গড়লেন। 

710

এই নিয়ে লোকেশ মোট ৭টি টেস্ট সেঞ্চুরি করেন। সব মিলিয়ে ৬টি দেশ ও ৫টি মহাদেশে তিনি টেস্ট শতরান করলেন। রাহুল ইংল্যান্ডে ২টি এবং ভারত, অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকায় ১টি করে টেস্ট সেঞ্চুরি করেন। 

810

৫টি মহাদেশে সেঞ্চুরি করার নিরিখে কেএল রাহুল এশিয়া ও ইউরোপে ২টি করে টেস্ট সেঞ্চুরি করেছেন। ১টি করে টেস্ট শতরান করেন আমেরিকা, ওশেনিয়া ও আফ্রিকায়। এর বাইরেএখনও কোথাও খেলেননি ভারতীয় তরুণ ওপেনার।

910

উপমহাদেশের বাইরে ভারতীয় ওপেনার হিসেবে শতরান করার নিরিখিও রেকর্ড গড়লেন কেএল রাহুল। উপমহাদেশের বাইরে সবথেকে বেশি সেঞ্চুরিকারী ভারতীয় ওপেনার সুনীল গাভাসকর। দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলেন কেএল রাহুল। তৃতীয় স্থানে বীরেন্দ্র সেওয়াগ।

1010

কে এল রাহুল-ময়াঙ্ক আগরওয়াল সেঞ্চুরিয়নে ওপেন করতে নেমে ১১৭ রানের পার্টনারশিপ করেন। ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসে তৃতীয় ওপেনিং জুটি হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে শতরানের পার্টনারশিপ করলেন। এর আগে ২০০৭ সালে ওয়াসিং জাফর ও দীনেশ কার্তিক জুটি এবং ২০১০ সালে  বীরেন্দ্র সেওয়াগ ও গৌতম গম্ভীর শতরানের পার্টনারশিপ করেছিলেন।