বালাকোট এয়ারস্ট্রাইক, ১২ দিনেই পুলওয়ামার জবাব দিয়েছিল ভারত, দেখুন ছবিতে ছবিতে

First Published 14, Feb 2020, 10:22 AM

দেখতে দেখতে পুলওয়ামায় পাকিস্তানি জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মহম্মদ'এর সন্ত্রাসবাদী হামলার একটা বছর কেটে গেল। ২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যু ঘটেছিল। ঘটনার পরই সারা দেশ বদলার আগুনে ফুটছিল। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন তার মনও একইরকম বিচলিত হয়ে আছে। তবে মাত্র ১২ দিনের মধ্যেই পুলওয়ামার জবাব দিয়েছিল ভারত।

 

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিদের হামলায় প্রাণ গিয়েছিল ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের।

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিদের হামলায় প্রাণ গিয়েছিল ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের।

এই হামলার দায় নিয়েছিল পাকিস্তানের জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মহম্মদ।

এই হামলার দায় নিয়েছিল পাকিস্তানের জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মহম্মদ।

এই নিয়ে সারা দেশে তীব্র বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছিল। ভারতের বিভিন্ন জায়গায় পাকিস্তানের পতাকা পুড়িয়ে, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কুশপুতুল জ্বালিয়ে প্রতিবাদ জানানো হয়। সকলেই ঘটনার বদলা চাইছিলেন।

এই নিয়ে সারা দেশে তীব্র বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছিল। ভারতের বিভিন্ন জায়গায় পাকিস্তানের পতাকা পুড়িয়ে, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কুশপুতুল জ্বালিয়ে প্রতিবাদ জানানো হয়। সকলেই ঘটনার বদলা চাইছিলেন।

ঘটনার তিনদিন পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান, সারা দেশের মতো তাঁরও মন বাগে গরগর করছে।

ঘটনার তিনদিন পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান, সারা দেশের মতো তাঁরও মন বাগে গরগর করছে।

এরপর ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোরে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে জইশ-ই-মহম্মদের প্রশিক্ষণ শিবিরে বিমান হামলা চালায় ভারত।

এরপর ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোরে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে জইশ-ই-মহম্মদের প্রশিক্ষণ শিবিরে বিমান হামলা চালায় ভারত।

গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় প্রশিক্ষণ শিবির। প্রায় ৩০০ জন জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে দাবি করা হলেও এখনও হত জঙ্গির সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে।

গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় প্রশিক্ষণ শিবির। প্রায় ৩০০ জন জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে দাবি করা হলেও এখনও হত জঙ্গির সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে।

ভারতীয় বায়ুসেনার এই হামলায় অংশ নিয়েছিল মিরাজ ২০০০ জেট যুদ্ধবিমান।

ভারতীয় বায়ুসেনার এই হামলায় অংশ নিয়েছিল মিরাজ ২০০০ জেট যুদ্ধবিমান।

ইসরাইলে তৈরি 'স্পাইস ২০০০' এবং 'পোপেয়ে' গাইডেড বোমা দিয়ে হামলা চালানো হয়েছিল।

ইসরাইলে তৈরি 'স্পাইস ২০০০' এবং 'পোপেয়ে' গাইডেড বোমা দিয়ে হামলা চালানো হয়েছিল।

পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ হামলার কথা স্বীকার করলেও তাতে জঙ্গি নিধনের বিষয়টি মানেনি। তারা দাবি করেছিল, ভারতের এই হামলায় কয়েকটি গাছ ও কাকের মৃত্যু হয়েছে।

পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ হামলার কথা স্বীকার করলেও তাতে জঙ্গি নিধনের বিষয়টি মানেনি। তারা দাবি করেছিল, ভারতের এই হামলায় কয়েকটি গাছ ও কাকের মৃত্যু হয়েছে।

তবে ভারতের সেই হামলায় পাকিস্তানের বুক যে কেঁপে গিয়েছিল, তার প্রমাণ পরের দিনই এফ-১৬ য়ুদ্ধবিমান নিয়ে ভারতে একইরকম বিমানহামলার চেষ্টা। সেই চেষ্টাও যদিও উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের মতো  বায়ুসেনা অফিসারদের তৎপড়়তায় ব্যর্থ হয়েছিল।

তবে ভারতের সেই হামলায় পাকিস্তানের বুক যে কেঁপে গিয়েছিল, তার প্রমাণ পরের দিনই এফ-১৬ য়ুদ্ধবিমান নিয়ে ভারতে একইরকম বিমানহামলার চেষ্টা। সেই চেষ্টাও যদিও উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের মতো বায়ুসেনা অফিসারদের তৎপড়়তায় ব্যর্থ হয়েছিল।

loader