বিটিং রিট্রিট ২০২০ দিয়ে শেষ হল প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপন, দেখে নিন ছবিতে ছবিতে

First Published 29, Jan 2020, 10:00 PM IST

বুধবার বিকেলে বিটিং রিট্রিট ২০২০ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে প্রজাতন্ত্র দিবসের সমাপ্তি ঘোষণা করা হল। তিন বাহিনীর ব্যান্ড অংশ নেয় এই অনুষ্ঠানে। কী এই অনুষ্ঠানের ইতিহাস? কীই বা হল আজ? দেখে নিন ছবিতে ছবিতে।

 

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) নয়াদিল্লির বিজয় চকে অনুষ্ঠিত হল বিটিং রিট্রিট ২০২০ অনুষ্ঠান

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) নয়াদিল্লির বিজয় চকে অনুষ্ঠিত হল বিটিং রিট্রিট ২০২০ অনুষ্ঠান

এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে চার দিন ধরে চলা প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি চিহ্নিত করা হয়ে থাকে

এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে চার দিন ধরে চলা প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি চিহ্নিত করা হয়ে থাকে

রাইসিনা হিলস-এ এই অনুষ্ঠানে অংশ নেয় সশস্ত্র বাহিনীর তিনটি শাখা - সেনাবাহিনী, নৌসেনাবাহিনী ও বায়ুসেনাবাহিনীর ব্যান্ডগুলি।

রাইসিনা হিলস-এ এই অনুষ্ঠানে অংশ নেয় সশস্ত্র বাহিনীর তিনটি শাখা - সেনাবাহিনী, নৌসেনাবাহিনী ও বায়ুসেনাবাহিনীর ব্যান্ডগুলি।

বিটিং রিট্রিট ২০২০-তে মোট ১৪টি সামরিক ব্যান্ড পারফর্ম করে

বিটিং রিট্রিট ২০২০-তে মোট ১৪টি সামরিক ব্যান্ড পারফর্ম করে

ভারতের রাষ্ট্রপতির আগমনের সঙ্গে সঙ্গে এই অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। তাঁর সঙ্গে ছিলেন ঘোড়সওয়ার দেহরক্ষীরা।

ভারতের রাষ্ট্রপতির আগমনের সঙ্গে সঙ্গে এই অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। তাঁর সঙ্গে ছিলেন ঘোড়সওয়ার দেহরক্ষীরা।

প্রথামতো অনুষ্ঠানের শেষের দিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিজয়চকে হেঁটে এসে জনতাকে স্বাগত জানান

প্রথামতো অনুষ্ঠানের শেষের দিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিজয়চকে হেঁটে এসে জনতাকে স্বাগত জানান

১৯৫০ সালে এই অনুষ্ঠানটি শুরু হয়, ভারতীয় সেনাবাহিনীর মেজর রবার্টস-এর হাত ধরে

১৯৫০ সালে এই অনুষ্ঠানটি শুরু হয়, ভারতীয় সেনাবাহিনীর মেজর রবার্টস-এর হাত ধরে

বিট রিট্রিট ২০২০ অনুষ্ঠানে তিন বাহিনীরই নেতৃত্ব দেন উইং কমান্ডার বিপুল গয়াল

বিট রিট্রিট ২০২০ অনুষ্ঠানে তিন বাহিনীরই নেতৃত্ব দেন উইং কমান্ডার বিপুল গয়াল

বিমানবাহিনীর নেতৃত্ব দেন ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট শ্রীকান্ত শর্মা এবং আরও তিন অফিসার। এয়ার ফোর্সের ব্যান্ডে ৭২ জন বাদক এবং ৩ জন ড্রাম মেজর ছিলেন।

বিমানবাহিনীর নেতৃত্ব দেন ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট শ্রীকান্ত শর্মা এবং আরও তিন অফিসার। এয়ার ফোর্সের ব্যান্ডে ৭২ জন বাদক এবং ৩ জন ড্রাম মেজর ছিলেন।

অতীতে দিনের শেষে যুদ্ধ বন্ধ করে যুদ্ধক্ষেত্র ছেড়ে সৈন্যরা যখন শিবিরে ফিরে আসত তখন এই রকম ব্যান্ড বাজানো হত। সেখান থেকেই প্রজাতন্ত্র দিবসের পর সেনাদের শিবিরে ফেরার জন্য এই বিটিং রিট্রিট প্রথা চালু করা হয়।

অতীতে দিনের শেষে যুদ্ধ বন্ধ করে যুদ্ধক্ষেত্র ছেড়ে সৈন্যরা যখন শিবিরে ফিরে আসত তখন এই রকম ব্যান্ড বাজানো হত। সেখান থেকেই প্রজাতন্ত্র দিবসের পর সেনাদের শিবিরে ফেরার জন্য এই বিটিং রিট্রিট প্রথা চালু করা হয়।

বিটিং রিট্রিট অনুষ্ঠানের শেষে রাইসিনা হিলস -এর রাষ্ট্রপতি ভবন সেজে ওঠে তেরঙ্গা আলোয়

বিটিং রিট্রিট অনুষ্ঠানের শেষে রাইসিনা হিলস -এর রাষ্ট্রপতি ভবন সেজে ওঠে তেরঙ্গা আলোয়

loader