লাদাখ নিয়ে উত্তেজনা না মিটতেই উত্তারখণ্ডে লোলুপ দৃষ্টি জিনপিংয়ের, সীমান্তে শুরু লালফৌজের নির্মাণ কাজ

First Published 16, Sep 2020, 3:55 PM

দুই দেশের বিদেশমন্ত্রীর বৈঠকে লাদাখে বিতর্কিত সীমান্ত থেকে সেনা সরাতে সম্মত হয়েছে ভারত ও চিন। তবে লাদাখে চাপা উত্তেজনা এখনও অব্যাহত। এর মধ্যেই চিনা সেনার নজর পড়ল উত্তারখণ্ড সীমান্তে। ভারতের পাহাড়ি এই রাজ্যের সীমান্ত ঘেঁষে নাকি এবার নির্মাণ কাজ শুরু করেছে পিপলস লিবারেশন আর্মি। 

<p><strong>লাদাখে উত্তেজনার মাঝেই উত্তরাখণ্ড সীমান্তে নির্মাণ শুরু করেছে চিনের কুখ্যাত লালফৌজ। তিনকার-লিপু পাসের ৮ কিলোমিটার দূরে জিজো গ্রামের কাছে চিনের অংশে শুরু হয়েছে এই নির্মাণ।&nbsp;</strong></p>

লাদাখে উত্তেজনার মাঝেই উত্তরাখণ্ড সীমান্তে নির্মাণ শুরু করেছে চিনের কুখ্যাত লালফৌজ। তিনকার-লিপু পাসের ৮ কিলোমিটার দূরে জিজো গ্রামের কাছে চিনের অংশে শুরু হয়েছে এই নির্মাণ। 

<p><strong>গত কয়েকদিন ধরেই উত্তরাখণ্ড &nbsp;সীমান্ত লাগোয়া এই অঞ্চলে সন্দেহজনক গতিবিধি লক্ষ্য করা গিয়েছে চিনা ফৌজের।&nbsp;</strong></p>

গত কয়েকদিন ধরেই উত্তরাখণ্ড  সীমান্ত লাগোয়া এই অঞ্চলে সন্দেহজনক গতিবিধি লক্ষ্য করা গিয়েছে চিনা ফৌজের। 

<p><strong>এদিকে চিনের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভারতে চাপে ফেলতে চাইছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি। জানা যাচ্ছে ভারত সীমান্তে ২০০টি নতুন বর্ডার আউট পোস্ট তৈরি করেছে নেপাল।&nbsp;</strong></p>

এদিকে চিনের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভারতে চাপে ফেলতে চাইছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি। জানা যাচ্ছে ভারত সীমান্তে ২০০টি নতুন বর্ডার আউট পোস্ট তৈরি করেছে নেপাল। 

<p><strong>এখানেই থেমে নেই নেপালের ষড়যন্ত্র। গত কয়েকদিন ধরেই উত্তরাখণ্ডে সীমান্ত এলাকার ভারতীয় গ্রামের বাসিন্দাদের জমি, বাড়ি, টাকার প্রলোভন দিচ্ছে নেপাল। সূত্রের খবর, এই টাকা সরবরাহ করছে চিন।</strong></p>

এখানেই থেমে নেই নেপালের ষড়যন্ত্র। গত কয়েকদিন ধরেই উত্তরাখণ্ডে সীমান্ত এলাকার ভারতীয় গ্রামের বাসিন্দাদের জমি, বাড়ি, টাকার প্রলোভন দিচ্ছে নেপাল। সূত্রের খবর, এই টাকা সরবরাহ করছে চিন।

<p><strong>এদিকে&nbsp;&nbsp;অরুণাচলের দিকেও ফের লাল ফৌজের নজরের খবর পাওয়া যাচ্ছে। জানা গিয়েছে, অরুণাচল প্রদেশে ভারত-চিন সীমান্তের অন্তত চারটি জায়গায় সীমান্ত বরাবর সেনা সমাবেশ করছে চিন।</strong></p>

এদিকে  অরুণাচলের দিকেও ফের লাল ফৌজের নজরের খবর পাওয়া যাচ্ছে। জানা গিয়েছে, অরুণাচল প্রদেশে ভারত-চিন সীমান্তের অন্তত চারটি জায়গায় সীমান্ত বরাবর সেনা সমাবেশ করছে চিন।

<p><strong>অরুণাচলের সাফিলা, তুতিং, চ্যাং জে ও ফিসটালি সেক্টরে সীমান্তের ওপারে চিনা ভূখণ্ডে জড়ো হচ্ছে চিনা সেনা। ভারত-চিন সীমানা থেকে মাত্র ২০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে পিএলএ।</strong></p>

অরুণাচলের সাফিলা, তুতিং, চ্যাং জে ও ফিসটালি সেক্টরে সীমান্তের ওপারে চিনা ভূখণ্ডে জড়ো হচ্ছে চিনা সেনা। ভারত-চিন সীমানা থেকে মাত্র ২০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে পিএলএ।

<p><strong>আশঙ্কা করা হচ্ছে &nbsp;এলাকার কিছু পাহাড়ি এলাকার দখল নিতে পারে চিনা সেনা। গত কয়েক দিন ধরেই তারা নিজেদের এলাকায় রাস্তা-সহ অন্যান্য পরিকাঠামো তৈরি করতে লেগেছে।</strong></p>

আশঙ্কা করা হচ্ছে  এলাকার কিছু পাহাড়ি এলাকার দখল নিতে পারে চিনা সেনা। গত কয়েক দিন ধরেই তারা নিজেদের এলাকায় রাস্তা-সহ অন্যান্য পরিকাঠামো তৈরি করতে লেগেছে।

<p><strong>চিনা সেনার গতিবিধির কথা মাথায় রেখে এলএসি-র সব সেক্টরে সতর্ক করা হয়েছে ভারতীয় সেনাকে।&nbsp;</strong></p>

চিনা সেনার গতিবিধির কথা মাথায় রেখে এলএসি-র সব সেক্টরে সতর্ক করা হয়েছে ভারতীয় সেনাকে। 

<p><strong>পাশাপাশি ভূটান সীমান্তের কাছে চিনা ফৌজের গতিবিধির উপরেও নজর রাখছে ভারতীয় সেনা।</strong></p>

পাশাপাশি ভূটান সীমান্তের কাছে চিনা ফৌজের গতিবিধির উপরেও নজর রাখছে ভারতীয় সেনা।

loader