ভয়াবহ ভূমিকম্পের রেশ না মিটতেই ২৪ ঘণ্টায় ১৪০ বার "আফটারশক", তছনছ রিসর্ট শহর হুয়াতুলকো

First Published 24, Jun 2020, 1:52 PM

ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল মধ্য আমেরিকার দেশ মেক্সিকো। রিখটার স্কেলে কম্পনের তীব্রতা ৭.৪। এই ভয়াবহ কম্পনের ফলে এখনও পর্যন্ত ৬ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। ফাটল ধরেছে বহু বাড়িতে। তবে এখানেই শেষ নয় প্রথমবার কম্পনের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আরও ১৪০ বার কম্পন অনুভূত হয়েছে। কম্পনের তীব্রতায় প্রচুর বাড়ি ভয়ঙ্করভাবে দুলতে শুরু করে। আতঙ্কে হাজার হাজার মানুষ সব রাস্তায় নেমে আসেন। এই ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে মেক্সিকোর ওয়াক্সাকা প্রদেশের হুয়াতুলকো শহরের।

<p><strong>মঙ্গলবার শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে দক্ষিণ মেক্সিকোর ওয়াক্সাকা প্রদেশের হুয়াতুলকো শহর।</strong></p>

মঙ্গলবার শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে দক্ষিণ মেক্সিকোর ওয়াক্সাকা প্রদেশের হুয়াতুলকো শহর।

<p><strong>মেক্সিকোর দক্ষিণাপ্রান্তে অনুভূত  ৭.৫ মাত্রার এই শক্তিশালী ভূমিকম্পে অন্তত ৬ জন মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। মঙ্গলবারের ওই ভূমিকম্পে অনেকেই গুরুতর আহত হয়েছেন। </strong></p>

মেক্সিকোর দক্ষিণাপ্রান্তে অনুভূত  ৭.৫ মাত্রার এই শক্তিশালী ভূমিকম্পে অন্তত ৬ জন মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। মঙ্গলবারের ওই ভূমিকম্পে অনেকেই গুরুতর আহত হয়েছেন। 

<p><strong>কম্পনের মূল কেন্দ্র থেকে শত শত মাইল দূরে থাকা রাজধানী মেক্সিকো সিটিতে ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।  বহু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। </strong></p>

কম্পনের মূল কেন্দ্র থেকে শত শত মাইল দূরে থাকা রাজধানী মেক্সিকো সিটিতে ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।  বহু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। 

<p><strong>ভূমিকম্প আঘাত হানার সঙ্গে সঙ্গে রাজধানী মেক্সিকো সিটির বিপৎসংকেত বেজে ওঠে। কেঁপে ওঠে নগরের বাড়িঘর। ওয়াক্সাকা, গুয়েরেরো, পিউবলা ও কিওক্যাম রাজ্যেও এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়।</strong></p>

ভূমিকম্প আঘাত হানার সঙ্গে সঙ্গে রাজধানী মেক্সিকো সিটির বিপৎসংকেত বেজে ওঠে। কেঁপে ওঠে নগরের বাড়িঘর। ওয়াক্সাকা, গুয়েরেরো, পিউবলা ও কিওক্যাম রাজ্যেও এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

<p><strong>প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল, শক্তিশালী এই ভূমিকম্পের মাত্রা ৭.১ ছিল। কিন্তু মেক্সিকান সিসমোলজিক্যাল সার্ভিস পরে জানায়, এটার মাত্রা ছিল ৭.৪।</strong></p>

প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল, শক্তিশালী এই ভূমিকম্পের মাত্রা ৭.১ ছিল। কিন্তু মেক্সিকান সিসমোলজিক্যাল সার্ভিস পরে জানায়, এটার মাত্রা ছিল ৭.৪।

<p><strong>ভূমিকম্প শুরু হওয়ার পর হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। মেক্সিকো সিটির রাস্তা হয়ে ওঠে জনারণ্য। লোকজন গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের ভয়াবহ ভূমিকম্পের কথা স্মরণ করতে শুরু করে। সে সময়ের ভূমিকম্পে প্রাণ যায় ৪৬৫ জন মানুষের।</strong></p>

ভূমিকম্প শুরু হওয়ার পর হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। মেক্সিকো সিটির রাস্তা হয়ে ওঠে জনারণ্য। লোকজন গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের ভয়াবহ ভূমিকম্পের কথা স্মরণ করতে শুরু করে। সে সময়ের ভূমিকম্পে প্রাণ যায় ৪৬৫ জন মানুষের।

<p><strong>মার্কিন ভূতত্ত্ববিদেরা জানিয়েছেন, প্রথম কম্পনটি অনুভূত হয় স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ মেক্সিকোর দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূলে। জানা গিয়েছে, কম্পনের উৎসস্থল ভূতল থেকে ২৬ কিলোমিটার গভীরে, সান্তা মারিয়া থেকে ১২ কিমি দক্ষিণ-দক্ষিণ-পশ্চিমে। </strong></p>

মার্কিন ভূতত্ত্ববিদেরা জানিয়েছেন, প্রথম কম্পনটি অনুভূত হয় স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ মেক্সিকোর দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূলে। জানা গিয়েছে, কম্পনের উৎসস্থল ভূতল থেকে ২৬ কিলোমিটার গভীরে, সান্তা মারিয়া থেকে ১২ কিমি দক্ষিণ-দক্ষিণ-পশ্চিমে। 

<p><strong>মঙ্গলবারের এই ভূমিকম্প মেক্সিকো  ছাড়াও গুয়াতেমালা, এল সালভাদর এবং হন্ডুরাস-সহ মেক্সিকো এবং মধ্য আমেরিকার প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূল অঞ্চলে অনুভূত হয়। </strong></p>

মঙ্গলবারের এই ভূমিকম্প মেক্সিকো  ছাড়াও গুয়াতেমালা, এল সালভাদর এবং হন্ডুরাস-সহ মেক্সিকো এবং মধ্য আমেরিকার প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূল অঞ্চলে অনুভূত হয়। 

<p><strong>প্রথমে ৭.৪ তীব্রতার শক্তিশালী ভূমিকম্প হওয়ার পরে গত  ২৪ ঘণ্টা ধরে ১৪০টি  আফটারশকের খবর পাওয়া গিয়েছে।</strong></p>

প্রথমে ৭.৪ তীব্রতার শক্তিশালী ভূমিকম্প হওয়ার পরে গত  ২৪ ঘণ্টা ধরে ১৪০টি  আফটারশকের খবর পাওয়া গিয়েছে।

<p><strong>কম্পনের তীব্রতায় প্রচুর বাড়ি ভয়ঙ্করভাবে দুলতে শুরু করে। আতঙ্কে হাজার হাজার মানুষ সব রাস্তায় নেমে আসেন। </strong></p>

কম্পনের তীব্রতায় প্রচুর বাড়ি ভয়ঙ্করভাবে দুলতে শুরু করে। আতঙ্কে হাজার হাজার মানুষ সব রাস্তায় নেমে আসেন। 

<p><strong>জানা যাচ্ছে ভূমিকম্পে মৃতদের মধ্যে একজন রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি পেমেক্সের কর্মী। কম্পনের সময় মাথায় শিলা পড়ে তার মৃত্যু হয়। </strong></p>

জানা যাচ্ছে ভূমিকম্পে মৃতদের মধ্যে একজন রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি পেমেক্সের কর্মী। কম্পনের সময় মাথায় শিলা পড়ে তার মৃত্যু হয়। 

<p><strong>মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নিয়েতো ভূমিকম্পের পর টুইট বার্তায় বলেছেন, ভূমিকম্পের মাত্রা বিবেচনা করে দুর্যোগ প্রশমনে নিয়োজিত ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি কমিটিকে সক্রিয় করা হয়েছে।</strong></p>

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নিয়েতো ভূমিকম্পের পর টুইট বার্তায় বলেছেন, ভূমিকম্পের মাত্রা বিবেচনা করে দুর্যোগ প্রশমনে নিয়োজিত ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি কমিটিকে সক্রিয় করা হয়েছে।

<p><strong>রিখটার স্কেলে সাতের বেশি মাত্রার ভূমিকম্পগুলি বৃহত্তর ভূমিকম্প হিসেবেই গণ্য হয়। তা ব্যাপক আকারে ক্ষয়ক্ষতি করতে সক্ষম। ২০১৭ সালে মধ্য মেক্সিকোতে ৭.১ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। সেবার রাজধানী এবং আশেপাশের রাজ্যগুলিতে ৩৫৫ জন মারা গিয়েছিল  ভূমিকম্পে।</strong></p>

রিখটার স্কেলে সাতের বেশি মাত্রার ভূমিকম্পগুলি বৃহত্তর ভূমিকম্প হিসেবেই গণ্য হয়। তা ব্যাপক আকারে ক্ষয়ক্ষতি করতে সক্ষম। ২০১৭ সালে মধ্য মেক্সিকোতে ৭.১ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। সেবার রাজধানী এবং আশেপাশের রাজ্যগুলিতে ৩৫৫ জন মারা গিয়েছিল  ভূমিকম্পে।

<p><strong>এদিকে ভূমিকম্পের পরেই উপকূলে সুনামি দেখা দিয়েছে বলে জানায় দেশটির ভূতাত্বিক জরিপ বিভাগ। উপকূলীয় এলাকা বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। ভূমিম্পের ফলে মেক্সিকোর প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূল এবং মধ্য ও দক্ষিণ আমেরিকায় সুনামির আশঙ্কা করা হয়েছিল। তবে প্রাথমিকভাবে সুনামি সতর্কতা জারি করা হলেও পরে তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।</strong></p>

এদিকে ভূমিকম্পের পরেই উপকূলে সুনামি দেখা দিয়েছে বলে জানায় দেশটির ভূতাত্বিক জরিপ বিভাগ। উপকূলীয় এলাকা বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। ভূমিম্পের ফলে মেক্সিকোর প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূল এবং মধ্য ও দক্ষিণ আমেরিকায় সুনামির আশঙ্কা করা হয়েছিল। তবে প্রাথমিকভাবে সুনামি সতর্কতা জারি করা হলেও পরে তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

<p><strong>তিনটি টেকটোনিক প্লেটের সংযোগস্থলে অবস্থিত মেক্সিকো হ'ল বিশ্বের অন্যতম ভূমিকম্প-প্রবণ দেশ। ফলে এদেশে বড় বড় ভূমিকম্প ঘটে থাকে।  </strong><br />
 </p>

তিনটি টেকটোনিক প্লেটের সংযোগস্থলে অবস্থিত মেক্সিকো হ'ল বিশ্বের অন্যতম ভূমিকম্প-প্রবণ দেশ। ফলে এদেশে বড় বড় ভূমিকম্প ঘটে থাকে। 
 

<p><strong>বিগত কয়েকদিন ধরেই ভূমিকম্প অনুভূত হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে। গত সপ্তাহে কম্পন অনুভূত হয় নিউজিল্যান্ডেও। গত সপ্তাহ থেকে শুরু করে চলতি সপ্তাহেও ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে কম্পন অনুভূত হয়। </strong></p>

বিগত কয়েকদিন ধরেই ভূমিকম্প অনুভূত হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে। গত সপ্তাহে কম্পন অনুভূত হয় নিউজিল্যান্ডেও। গত সপ্তাহ থেকে শুরু করে চলতি সপ্তাহেও ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে কম্পন অনুভূত হয়। 

loader